আদালত বর্জনসহ টানা পাঁচ দিনেরকর্মসূচি ঘোষণা বিএনপির

স্টাফ রিপোর্টার:সুপ্রিমকোর্টচত্বরে মহাসমাবেশ করতে না দেয়ার প্রতিবাদে আদালত বর্জনসহ টানা পাঁচ দিনেরকর্মসূচি ঘোষণা করেছে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম। গতকাল শনিবার দুপুরে জাতীয়প্রেসক্লাব মিলনায়তনে খালেদা জিয়াকে নিয়ে সমাবেশ করে এ কর্মসূচি ঘোষণাকরেন ফোরামের সভাপতি ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া।চুয়াডাঙ্গা বিএনপি কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ সকাল সাড়ে ১০টায় বিক্ষোভ সমাবেশের ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে।

কেন্দ্রঘোষিত কর্মসূচির অংশহিসেবে আজ রোববার সকাল ১০টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত সারাদেশের আদালত বর্জনের ঘোষণাদেয়া হয়েছে। এছাড়া সোমবার সারাদেশের আইনজীবী সমিতিতে বিক্ষোভ সমাবেশ, মঙ্গলবার মানববন্ধন এবং বুধবার ও বৃহস্পতিবার কালোব্যাজ ধারণ এবং কালোপতাকা মিছিল করবেন আইনজীবীরা। বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিশ্চিত এবংঅ্যাডভোকেট চন্দন সরকারসহ সব গুম, খুন অপহরণের বিচার দাবিতে ফোরাম সারাদেশের আইনজীবীদের নিয়ে এ মহাসমাবেশের ডাক দেয়।

সমাবেশকে কেন্দ্র করেসুপ্রিমকোর্ট চত্বরে গত শুক্রবার রাতে মঞ্চ তৈরি হচ্ছিলো। কিন্তু অনুমোদন নাথাকারঅভিযোগে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী শুক্রবার রাত ১টার দিকে ওই মঞ্চভেঙে দেয়। মাইক কেড়ে নেয়। চেয়ার-টেবিল সরিয়ে ফেলে। বিদ্যুত লাইন বিচ্ছিন্নকরে দেয়। এ নিয়ে আইনজীবীদের সাথে পুলিশের বাকবিতণ্ডা হয়। সারারাতসুপ্রিমকোর্টের চারপাশ কড়া নিরাপত্তা ও নজরদারিতে রাখে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারীবাহিনী। তালা ঝুলিয়ে ভোর থেকেই সব গেটে পুলিশের অবস্থান। গণমাধ্যমকর্মীছাড়া কাউকে আদালত চত্বরে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি। তারপরও মহাসমাবেশ করারসিদ্ধান্তে অটল থাকেন আইনজীবীরা।

সকালে আইনজীবীরা সমাবেশে যোগ দিতেআসেন। মাজার গেট দিয়ে প্রবেশ করার চেষ্টা করেন তারা। ফলে এ গেটে ছিলো সবচেয়েবেশি কড়াকড়ি। সুপ্রিমকোর্টের ভেতরে ও বাইরে বিপুলসংখ্যক পুলিশ মোতায়েনছিলো। ছিলো তিন স্তরের পুলিশি ব্যারিকেড আর কাঁটাতারের বেড়া। এতো নিরাপত্তাবলয় ভেদ করে কেউই ঢুকতে পারেননি সমাবেশস্থলে। সমাবেশস্থলে ঢুকতে না দেয়ারপ্রতিবাদে আইনজীবীরা মাজার গেটের সামনে ছোট ছোট দলে বিক্ষোভ মিছিল করতেথাকেন। ফলে গোটা এলাকা প্রতিবাদ সমাবেশে পরিণত হয়। নানা ধরনের স্লোগান দিয়েতারা ঢোকার চেষ্টা করেন। এ সময় পুলিশের সাথে আইনজীবীদের টানাহেঁচড়া শুরুহয়। সেখান থেকে ১৯ জনকে আটক করে নিয়ে যায় পুলিশ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *