আজ টিকা দিবস : শিশুদের খাওয়ানো হচ্ছে টিকা

স্টাফ রিপোর্টার: সরকার ২১তম জাতীয় টিকা দিবস পালন করবে আজ শনিবার। এদিন দেশের দু কোটি ২০ লাখ শিশুকে পোলিও টিকা খাওয়ানো হবে। দেশকে পোলিও মুক্ত রাখতে আজ চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুরসহ সারাদেশের এক লাখ ৩০ হাজার টিকাদান কেন্দ্রের মাধ্যমে শিশুদের টিকা খাওয়ানো হবে।

টিকা দিবসে পাঁচ বছরের নিচে সব শিশুকে দু ফোঁটা করে পোলিও টিকা খাওয়ানো হবে। এ বয়সের কোনো শিশু এর আগে পোলিও টিকা খেয়ে থাকলেও ফের তাকে পোলিও টিকা খাওয়ানো হবে। শনিবার জন্ম নেয়া শিশুকেও টিকা খাওয়ানো হবে বলে জানান তিনি। সকাল ৮ টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত টিকাদান কেন্দ্রগুলো খোলা থাকবে। এছাড়া ভাসমান শিশুদের যেমন- রেলস্টেশন, বাসস্ট্যান্ড, লঞ্চ টার্মিনালসহ বিভিন্ন জনসমাগম স্থানে স্থাপিত অস্থায়ী টিকাদান কেন্দ্র থেকেও শিশুদের টিকা খাওয়ানো হবে। জাতীয় টিকা দিবসের পরবর্তী চারদিন চাইল্ড টু চাইল্ড সার্চ কার্যক্রম চলবে।

চুয়াডাঙ্গা জেলায় ১ লাখ ১৮ হাজার ৩৬২ জন (শুন্য থেকে ৫ বছর বয়সী) শিশুকে এ টিকার আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন ডা. খন্দকার মিজানুর রহমান। চুয়াডাঙ্গায় ৯৮০টি কেন্দ্রে একযোগে এ কর্মসূচি পালন করা হবে। এর মধ্যে অস্থায়ী টিকাদান কেন্দ্র ৮৮৮টি, স্থায়ী টিকাদান কেন্দ্র ৭টি, অতিরিক্ত টিকাদান কেন্দ্র ৬৩টি ও ভ্রাম্যমাণ টিকাদান কেন্দ্র ২২টি। স্বেচ্ছাসেবক সংখ্যা ৪ হাজার ৯০০টি। স্বাস্থ্য সহকারী, টিকাদানকর্মী ও পরিবার পরিকল্পনা সহকারীর সংখ্যা ৩১৮ জন এবং প্রথম সারির তত্ত্বাবধায়ক ১১২ জন। আগামী ২১ ডিসেম্বর শূন্য থেকে ৫ বছর বয়সের সকল শিশুকে ২ ফোঁটা পোলিও টিকা খাওয়ানো হবে। এছাড়া ২২ ডিসেম্বর থেকে ২৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাদপড়া শিশুদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে অনুসন্ধান কার্যক্রম চলবে।

মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, বাংলাদেশকে পোলিওমুক্ত করা এবং পঙ্গুত্ব রক্ষায় ০-৫ বছর বয়সী সকল শিশুকে পোলিও টিকা খাওয়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন মেহেরপুর সিভিল সার্জন ডাক্তার আব্দুস শহীদ। আজ শনিবার ২১তম জাতীয় টিকা দিবসে সারাদেশের মতো মেহেরপুর জেলার শিশুদের দু ফোঁটা করে পোলিও টিকা খাওয়ানো হবে। সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে একটানা চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। জেলার বিভিন্ন গ্রামে অবস্থিত ইপিআই টিকাদানকেন্দ্র ছাড়াও মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতাল, মেহেরপুর পৌরসভা ভবন, মেহেরপুর বাসস্ট্যান্ড, কাথুলী বাসস্ট্যান্ড, যাদবপুর ঘাট, গোভিপুর ঘাট, মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র, গাংনী ও মুজিবনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও গাংনী বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পোলিও টিকা খাওয়ানো হবে। জেলার ৬১ হাজার ৫৪৯ জন শিশুকে পোলিও টিকা খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এতে কাজ করবেন ২ হাজার ৪৪৫ জন স্বেচ্ছাসেবক। সময় মতো কেন্দ্রে গিয়ে শিশুদের টিকা খাওয়ানোর অনুরোধ করেছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

জীবননগর ব্যুরো জানিয়েছে, ২১তম জাতীয় টিকা দিবস উপলক্ষে আজ শনিবার জীবননগর উপজেলায় ১৮ হাজার ৭১৫ শিশুকে পোলিও টিকা খাওয়ানো হবে। জীবননগর পৌরসভায় ২৯টি কেন্দ্রে ও উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে ১১০ কেন্দ্রের মাধ্যমে এ টিকা খাওয়ানো হবে বলে জানানো হয়েছে।

সংশ্লিষ্টসূত্রে জানা যায়, ২১তম জাতীয় টিকা দিবস সফল করতে জীবননগর উপজেলার উথলী, আন্দুলবাড়িয়া, বাঁকা, হাসাদাহ, রায়পুর ও সীমান্ত ইউনিয়নে ১১০ কেন্দ্রের মাধ্য ১৬ হাজার ১৯৪জন শিশুকে পোলিও টিকা খাওয়ানো হবে। জীবননগর পৌরসভার টিকাদান সুপারভাইজার জামালউদ্দিন জানান এ পৌরসভার ২৯টি কেন্দ্রের মাধ্যমে ২ হাজার ৫২১ শিশুকে পোলিও টিকা খাওয়ানো হবে।

জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. আবু হাসানুজ্জামান নূপুর এ দিবস সফল করতে এবং পোলিওমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে শূন্য থেকে ৫ বছর বয়সী সকল শিশুকে টিকা কেন্দ্রে নিয়ে গিয়ে পোলিও টিকা খাওয়ানোর জন্য অভিভাবকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *