আজ-কাল স্থগিত বোরবার থেকে ফের অবরোধ

স্টাফ রিপোর্টার: বিরোধী জোটের লাগাতার অবরোধ আজ ও আগামীকাল স্থগিত করা হয়েছে। আগামী রোববার থেকে ফের দেশব্যাপি লাগাতার অবরোধ শুরু হবে। গতকাল রাতে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ড. এম ওসমান ফারুক এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন। এছাড়া পূর্বঘোষিত আজ শুক্রবার দেশব্যাপি দোয়া দিবস ও শনিবার বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করবে বিরোধী জোট।

এদিকে গতকালও দেশব্যাপি গণগ্রেফতার, অগ্নিসংযোগ, ভাঙচুর চলেছে। লাগাতার অবরোধে লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে ট্রেনের শিডিউল। আগের দিনের ট্রেন ছাড়ছে পরের দিন। এতে চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন যাত্রীরা। অবরোধ চলাকালে গতকালও গাইবান্ধার পলাশবাড়িতে দুটি পণ্যবোঝাই ট্রাকে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করা হয়েছে। নারায়ণগঞ্জে একটি চলন্ত প্রাইভেট কারে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করে দুর্বৃত্তরা। এছাড়া যৌথবাহিনী দেশের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে গণগ্রেফতার চালিয়েছে। বগুড়ায় বিভিন্ন  জায়গায় অভিযান চালিয়ে জামায়াত-শিবিরের অন্তত ৩০ জন নেতাকর্মী আটক করেছে পুলিশ। রংপুরের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে বিএনপি-জামায়াতের অন্তত ২১ নেতাকর্মী আটক করেছে যৌথবাহিনী। ফেনীর বিভিন্ন জায়গায় যৌথবাহিনী অভিযান চালিয়ে জামায়াত-শিবিরের অন্তত ১৫ জন নেতাকর্মীকে আটক করেছে। লক্ষ্মীপুরের রায়পুর ও কমলনগরে বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে ১৮ দলের অন্তত ৮ নেতাকর্মী আটক করেছে যৌথবাহিনী। মানিকগঞ্জে জেলা বিএনপির যুগ্মসাধারণ সম্পাদক তোজাম্মেল হকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়েরের প্রতিবাদে শনিবার সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডেকেছে স্থানীয় বিএনপি। এছাড়া রামগঞ্জে বিএনপি-জামায়াতের ৪শ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে ২৩টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। গতকাল রাজধানীতে যানবাহনের চলাচল ছিলো স্বাভাবিক। তবে রাজধানী থেকে দূরপাল্লার কোনো যান ছেড়ে যায়নি।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টার দিকে জেলা বিএনপির অর্থবিষয়ক সম্পাদক জেলা জাতীয়তাবাদী সংগ্রাম কমিটির আহ্বায়ক মো. জাহাঙ্গীর আলমের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় কোর্টমোড়স্থ জেলা বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ের বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সভাপতিত্ব করেন জেলা বিএনপির সহসভাপতি আইনুর হোসেন পচা। প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা বিএনপির অর্থবিষয়ক সম্পাদক জেলা জাতীয়তাবাদী সংগ্রাম কমিটির আহ্বায়ক মো. জাহাঙ্গীর আলম। প্রধান বক্তা ছিলেন কেন্দ্রীয় মৎস্যজীবী দলের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক আবু বক্কর সিদ্দিক বকুল। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা বিএনপির সহসভাপতি আরশেদ আলী কালু, জেলা মৎস্যজীবী দলের সাধারণ সম্পাদক ওহিদুল ইসলাম ওহিদ, জেলা কৃষকদলের সভাপতি হামিদুল হক নেতাজী প্রমুখ।

মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, ১৮ দলীয় জোটের ডাকা অনির্দিষ্টকালের অবরোধের কারণে মেহেরপুর থেকে আন্তঃজেলা ও দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার মেহেরপুর থেকে কোনো দূরপাল্লার যান ছেড়ে যায়নি। চলাচল করেনি আন্তঃজেলার বাস। তবে ছোট ছোট যানবাহন চলাচল করছে। অবরোধের কারণে মোটরশ্রমিক ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা অনেকটাই মানবেতর জীবনযাপন করছেন। আর দূরের যাত্রীরা পড়েছেন চরম বিপাকে। গুরুত্বপূর্ণ কাজে জেলার বাইরে যেতে পারছেন না সাধারণ মানুষ। তবে অবরোধ চলাকালে জেলার কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। শহরের অধিকাংশ দোকানপাট খোলা ছিলো। ১৮ দলীয় জোটের নেতাকর্মীরা সকাল থেকে রাজপথের কোনো কর্মসূচি পালন করেনি। দিনভর আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর টহল অব্যাহত থাকায় কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

ঝিনাইদহ অফিস জানিয়েছে, দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন বাতিলের দাবিতে ঝিনাইদহে ১৮ দলের ডাকা অবরোধ কর্মসূচি পালিত হয়েছে। জেলার ওপর দিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার দূরপাল্লাসহ সকল রুটের যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিলো। তবে রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক রয়েছে। যানবাহন চলাচল না করায় যাত্রীরা পড়েছেন দুর্ভোগে।

এদিকে অবরোধের সমর্থনে বৃহস্পতিবার সকালে জেলা বিএনপির যুগ্মসম্পাদক অ্যাড. এমএ মজিদের নেতৃত্বে বিএনপি নেতাকর্মীরা শহরের এইচএসএস সড়ক থেকে একটি মিছিল বের করে। এছাড়া শহরের আরাপপুরে সিটি কলেজ রোড থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে বিএনপি। মিছিলটি বিভিন্ন সড়ক ঘুরে রাবেয়া ক্লিনিকের সামনে গিয়ে শেষ হয়। মিছিল থেকে ঝিনাইদহ-কুষ্টিয়া সড়কে অবস্থান নিয়ে অবরোধের সমর্থনে বিভিন্ন স্লোগান দেন নেতাকর্মীরা। অবরোধকারীরা দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন বাতিলের দাবি জানান।

Leave a comment

Your email address will not be published.