আওয়ামী লীগ প্রার্থীর চেয়ার ধরে রাখার লড়াই

জীবননগরের রায়পুর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন জমে উঠেছে

জীবননগর ব্যুরো: জীবননগর উপজেলার রায়পুর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন জমে উঠেছে। এ ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের তাহাজ্জত হোসেন। তিনি এবারও আওয়ামী লীগের টিকেট নিয়ে নৌকা প্রতীকে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। আসনটি ধরে রাখতে তিনি প্রাণপন চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। অন্যদিকে দলের বিদ্রোহী প্রার্থী আনারস প্রতীকের আব্দুর রশীদ, বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকের মতিয়ার রহমান ও জামায়াত সমর্থিত মোহাম্মদ আলী মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে ইউনিয়নটি দখল করার লড়াইয়ে নেমেছেন। এ ইউনিয়নে ভোটার সংখ্যা ৯ হাজার ৯৩ জন। আগামী ২৯ মার্চ এ ইউনিয়নের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলে উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে।
এ ইউনিয়নে সংরক্ষিত ১, ২ ও ৩নং আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৩জন। এরা হলেন- কুলছুম বেগম (বক), তাহেরা বেগম (সূর্যমুখী ফুল) ও রিনা বিশ্বাস (মাইক)। ৪, ৫ ও ৬নং আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ২জন। এরা হলেন- কদবানু (সূর্যমুখী ফুল) ও কহিনুর বেগম (মাইক)। ৭, ৮ ও ৯নং আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ২জন। এরা হলেন- খাদেজা বেগম (সূর্যমুখী ফুল) ও রিপা খাতুন (মাইক)।
সাধারণ ১নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৩জন। এরা হলেন- জালাল উদ্দীন বিশ্বাস (ফুটবল), মিলনুর রহমান (মোরগ) ও রওশন আলী (বৈদ্যুতিক পাখা)। ২নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ২জন। এরা হলেন- জেহের আলী (ফুটবল) ও মাহাবুবুর রহমান (মোরগ)। ৩নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ২জন। এরা হলেন- আব্দুল লতিব (ফুটবল) ও আ. মমিন খান (মোরগ)। ৪নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৪জন। এরা হলেন- আলী হোসেন (ফুটবল), আমাদুল হক (মোরগ), ইসলাম ম-ল (টিউবওয়েল) ও হারুন (বৈদ্যুতিক পাখা)। ৫নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ২জন। এরা হলেন- আব্দুল মালেক (ফুটবল) ও গোলাম মোস্তফা খাঁন (মোরগ)। ৬নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৪জন। এরা হলেন- আমিন উদ্দীন গাজী (ফুটবল), ইব্রাহিম মল্লিক (টিউবওয়েল), জয়নাল অবেদীন (মোরগ) ও হযরত আলী (বৈদ্যুতিক পাখা)। ৭নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৩জন। এরা হলেন- আব্দুস শুকুর (টিউবওয়েল), আরিফুল ম-ল (বৈদ্যুতিক পাখা) ও রায়হান উদ্দিন (মোরগ)। ৮নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ২জন। এরা হলেন- আব্দুল হান্নান (মোরগ) ও তরিকুল ইসলাম (ফুটবল) এবং ৯নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ২জন। এরা হলেন- নজরুল ইসলাম (বৈদ্যুতিক পাখা) ও মানিক মিয়া (ফুটবল)।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *