অপহরণের ৭২ ঘণ্টা অতিবাহিত হলেও আলমডাঙ্গা নগরবোয়লিয়ার বাবর আলীর সন্ধান পাওয়া যায়নি

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: অপহরণের প্রায় ৭২ ঘণ্টা অতিবাহিত হতে চললেও আলমডাঙ্গার নগরবোয়লিয়া গ্রামের বাবর আলীর সন্ধান পাওয়া যায়নি। বাবর আলীর উৎকণ্ঠিত পরিবার পরিজনেরা মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন।
আলমডাঙ্গা শহরের রেল স্টেশনের নিকট গত ১৯ জুলাই সন্ধ্যায় তাকে অপহরণ করা হয়েছে বলে পরিবারের অভিযোগ। মোবাইলে ৩০ হাজার টাকা দাবি করেছে বলে তার পরিবারের লোকজন জানিয়েছেন। তবে অনেকেই বিষয়টি রহস্যজনক বলে মনে করছে।
জানা গেছে, আলমডাঙ্গার নগরবোয়ালিয়া গ্রামের মৃত আলী আক্তারের ছেলে বাবর আলী (৪৭) গত মঙ্গলবার সকাল ৮টার দিকে প্রতিদিনের মতো বাড়ি থেকে ভ্যানেযোগে হাটবোয়ালিয়া বাজারে যায়। এরপর থেকে তিনি আর বাড়ি ফেরেননি। তার মোবাইলফোন বন্ধ পাওয়া যায়। পরদিন বুধবার সকাল ৯টার দিকে তিনি অপহৃত হয়েছেন বলে বাবর আলীর ছেলের মোবাইলফোনে রিং দিয়ে দুর্বৃত্তরা তার পরিবারের কাছে মুক্তিপণ হিসেবে ৩০ হাজার টাকা দাবি করে। ওই টাকা দিলে তাকে আলমডাঙ্গা রেল স্টেশনের নিকটে ছেড়ে দেয়া হবে বলে ফোনে জানানো হয়। উৎকণ্ঠিত বাবর আলীর পরিবার ওই দিন বেলা সাড়ে ১১টার দিকে অপহরকদের দেয়া ০১৮৬৬৯৪৭৬৩৯ নম্বরে বিকাশ করে ২০ হাজার টাকা দেয়। বিকাশে টাকা দেয়ার পর থেকে ওই মোবাইলফোন বন্ধ করে দেয়া হয়। অপহৃতের পরিবার আর কোনভাবেই যোগাযোগ করতে পারেনি। গতকাল সকালে শেষবারের মতো বাবর আলীর এক আত্মীয় বারব আলীর মোবাইলফোনে রিং দিলে অজ্ঞাত ব্যক্তি তা রিসিভ করেন। তিনি যশোরের হোটেল আমজাদিয়ার ম্যানেজার পরিচয় দিয়ে মোবাইলফোন নম্বরটি তার নিজের বলে দাবি করেন। তবে ওই একবারই সে নম্বরটি খোলা পাওয়া গিয়েছিলো। তারপর থেকে সেটিও বন্ধ বলে অসহায় পরিবারটির দাবি।
অপহৃত বাবর আলীর ছেলে সোলায়মান হক বলেন, এ অপহরণ বিষয়ে গত বুধবার রাতে আলমডাঙ্গা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি। কিন্তু ইতোমধ্যে অপহরণের ৭০ ঘণ্টা পার হতে চললেও পুলিশ বিষয়টির কোন কুলকিনারা করতে পারেনি। তারা চরম উৎকণ্ঠায় রয়েছেন বলে উল্লেখ করেছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *