অনির্দিষ্টকালের অবরোধে যানবহনে আরও আগুন-ভাঙচুর

গুলশানের কার্যালয়ে ষ্ঠ দিন পার করলেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া

 

স্টাফ রিপোর্টার: গুলশানের স্বীয় রাজনৈতিক কার্যালয়ে ৬ষ্ঠ দিন পার করলেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কার্যালয়ের মূল ফটকের তালা খুলে দেয়া হয়েছে। পুলিশের সংখ্যাও কমানো হয়েছে। এর আগে গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে তালা ঝুলিয়ে দেয় গুলশান থানা পুলিশ। তালা খুলে দিলেও খালেদা জিয়া তার কার্যালয় ছাড়ছেন না। অপরদিকে তার আহ্বানে সারাদেশে অবরোধ অব্যাহত রয়েছে। বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের ডাকা টানা অবরোধের চতুর্থ দিন শুক্রবারও দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রায় ১৫টি গাড়িতে আগুন ও ৪০টির বেশি গাড়ি ভাঙচুর করেছে পিকেটাররা। এ নিয়ে চার দিনে ৩ শতাধিক গাড়ি ভাঙচুর ও ৮০টির বেশি পুড়িয়ে দিয়েছে অবরোধকারীরা। শিবগঞ্জে মুকুল নামে এক আওয়ামী লীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে জামায়াত-শিবির ক্যাডাররা।

এদিকে গুলশান কার্যালয়ে অবস্থানকারী একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন- বেগম জিয়া কোনোক্রমেই ওই কার্যালয় ত্যাগ করবেন না। সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, খালেদা জিয়া অবরুদ্ধ নন, ইচ্ছে করলে পুলিশের নিরাপত্তা নিয়ে বাসায় ফিরে যেতে পারেন। বাসায় ফিরতে কোন বাধা নেই। তবে তার সাথে সাক্ষাত করতে আসা সাংবাদিক নেতা এবং পেশাজীবীদের খালেদা জিয়া জানিয়েছেন, তার অফিসের সম্মুখ থেকে পুলিশ সরলে তিনি নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে যাবেন। সেখান থেকে আন্দোলন পরিচালনা করবেন। মধ্যবর্তী নির্বাচন নিয়ে ফায়সালা না হওয়া অবধি তিনি বাসায় ফিরবেন না। তিনি অবরোধ চালিয়ে জেতে চান।

অবরোধে এদিন বিভিন্ন স্থানে বিক্ষিপ্ত বিক্ষোভ মিছিল, পুলিশের গুলি, ককটেল বিস্ফোরণ, ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও রেললাইনে নাশকতার ঘটনা ঘটেছে। সারাদেশে ৪০ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এছাড়া ৭ শতাধিক নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। এদিকে খালেদা জিয়াকে অবরুদ্ধ রাখা, পিপার স্প্রের মাধ্যমে তাকে হত্যা চেষ্টা ও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার প্রতিবাদ এবং মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ জাতীয় ও স্থানীয় নেতাদের মুক্তির দাবিতে বগুড়ার আগামীকাল রোববার সকাল থেকে ২৪ ঘণ্টা ও ফরিদপুরে আজ সকাল-সন্ধ্যা হরতালের ডাক দেয়া হয়েছে। নারায়ণগঞ্জে মিছিলকারীরা সড়কের পাশে পার্কিং করে রাখা ৯টি ট্রাক ও ১টি প্রাইভেট কারে ব্যাপক ভাংচুর চালায়। এ সময় দফায় দফায় ককটেল ও হাতবোমার বিস্ফোরণ ঘটায় তারা। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ১২ রাউন্ড গুলি ছোড়ে।

গাজীপুর ভানুয়া এলাকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ রেললাইনের ফিসপ্লেটের নাট খুলে ফেলে দুর্বৃত্তরা। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে লাইন মেরামত করে ফেলায় কোনো ধরনের দুর্ঘটনা ঘটেনি। বরিশাল নগরীর বগুড়া রোড সড়কে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করেছে ছাত্রদল। রাজশাহী সকাল সাড়ে ১০টার দিকে নগরীর চালপট্টি থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে মহানগর বিএনপি। বিভিন্ন সড়ক ঘুরে ভুবনমোহন পার্কে গিয়ে সমাবেশ করে নেতাকর্মীরা। পরে রাজশাহী কলেজের সামনে পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছোড়ে ছাত্রদল কর্মীরা। অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। রংপুরে সকাল থেকে রংপুর-কুড়িগ্রাম, রংপুর-দিনাজপুর, রংপুর-ঢাকা মহাসড়কে সশস্ত্র পুলিশ প্রহরায় যানবাহন চলাচল করেছে। সড়কগুলোতে যাত্রীবাহী বাস, মালবোঝাই ট্রাকের পাশাপাশি অন্যান্য ভারি যানবাহন চলেছে। গাইবান্ধায় বৃহস্পতিবার রাতে পলাশবাড়ীর মহেষপুরে রংপুর-ঢাকা মহাসড়কে গাছের গুঁড়ি ফেলে বিক্ষোভ ও ককটেল বিস্ফোরণ করে অবরোধকারীরা। পুলিশের টহল গাড়ি এলে তারা গাড়ি লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ও ককটেল ছুড়তে থাকে। খুলনায় সকালে মহানগরীতে ২০ দলীয় জোট সমাবেশ ও মিছিল করেছে। রাজপথে অভ্যন্তরীণ যানবাহন চলাচল ছিলো স্বাভাবিক। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার কানসাট বহলাবাড়ি এলাকায় রাত আটটার দিকে একটি আমবাগানের ভেতর মুকুলকে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। নেত্রকোনায় বৃহস্পতিবার রাতে নাগড়া মোড়ে একটি বিআরটিসি বাসে আগুন দিয়েছে অবরোধকারীরা। দিনাজপুরে পুলিশের বাধার কারণে ২০ দলের নেতাকর্মীরা মিছিল ও পিকেটিং করতে পারেনি।

জয়পুরহাট বৃহস্পতিবার রাতে পাঁচবিবির শিমুলতলীতে কয়লা বোঝাই একটি ট্রাকে আগুন দিয়েছে অবরোধকারীরা। সিরাজগঞ্জ উল্লাপাড়া সকালে সদর উপজেলার চণ্ডিদাসগাতী গ্রামের পাশে শিয়ালকোল-নলকা সড়কে গাড়ি ভাঙচুরের সময় এক শিবিরকর্মীকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। গৌরনদীতে ভোর রাতে দক্ষিণ পালরদী এলাকায় পুলিশের হেফাজতে থাকা পিকআপে পেট্রোল ঢেলে আগুন দেয় অবরোধকারীরা। কক্সবাজার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কঠোর প্রহরায় প্রায় অর্ধশত যাত্রীবাহী বাস ঢাকা-চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন গন্তব্যের উদ্দেশে রওনা দেয়। বগুড়া শেরপুরে সড়কের পাশ থেকে ছুড়ে মারা ঢিলে দুটি চলন্ত গাড়িচালক ও একটির হেলপার আহত হয়েছেন। এ ঘটনা পুলিশকে জানালে উল্টো পুলিশ হেলপারকে মারধর করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *