অজ্ঞাত পরিচয়ের সংজ্ঞাহীন ব্যক্তিকে হাসপাতালে ফেলে দু ব্যক্তির চম্পট

চুয়াডাঙ্গায় অজ্ঞান করে আলমসাধু ছিনতাই নাকি অন্য কিছু? জবাব মিলছে না

 

স্টাফ রিপোর্টার: হাতে তেলযুক্ত কালি লাগানো। বয়স আনুমানিক ৩৫ বছর। নিজেকে তিনি ড্রাইভার বলে জানালেও সুষ্ঠুভাবে তার পরিচয় দিতে পারেননি। চেক লুঙ্গি ও হাফ হাতা গেঞ্জি পরা ব্যক্তিকে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় গতকাল শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের ওয়ার্ডের সামনে ফেলে রেখে অজ্ঞাত পরিচয়ের দু ব্যক্তি সটকে পড়ে।

কীভাবে অজ্ঞান হয়েছেন, অজ্ঞান করে তার নিকট থেকে কি আলমসাধু ছিনিয়ে নিয়ে গেছে? এসব প্রশ্নের অবশ্য সুষ্ঠু জবাব তাৎক্ষণিকভাবে মেলেনি। রাতে তার সামান্য চেতনা ফেরে। তিনি এ সময় তার নাম বলেন, আলমগীর। পিতার নাম আব্দুল মজিদ। তার বাড়ি ঝিনাইদহের কোটঁচাঁদপুরের নওদাগা বলে জানালেও কথা ছিলো অস্পষ্ট।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের ওয়ার্ডের বারান্দার সামনে দীর্ঘ সময় পড়ে থাকার এক পর্যায়ে সেবিকার দৃষ্টিগোচর হয়। সেবিকার বিশেষ উদ্যোগে তাকে নেয়া হয় জরুরি বিভাগে। প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার পাশাপাশি তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গতরাতে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত চিকিৎসা চলছিলো। তিনি বিস্তারিত জানাতে পারেননি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *