৪২তম জাতীয় আন্তঃস্কুল-মাদরাসা ক্রীড়া প্রতিযোগিতার জোন চ্যাম্পিয়ন ভি,জে স্কুল

তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা পূর্ণ ম্যাচে গ্যালারী ছিল কানায় কানায় ভরা।

 

ক্রীড়া প্রতিবেদক: ৪২তম জাতীয় আন্তঃস্কুল-মাদরাসা ক্রীড়া প্রতিযোগিতার ফুটবলের চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা পর্যায়ের পশ্চিম জোন চ্যাম্পিয়ন হয়েছে চুয়াডাঙ্গা ভি.জে সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়। এ ফাইনাল খেলা দেখতে গতকাল শনিবার চুয়াডাঙ্গা স্টেডিয়াম ছিলো কানায় কানায় ভোরে ওঠেছিলো। গতকালের প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ম্যাচ ও উভয় দলের দর্শক-সমর্থকদের ব্যাপক উপস্থিতি চুয়াডাঙ্গার গৌরবময় ফুটবল অতীতকে স্মরণ করিয়ে দিলো। একজন প্রাক্তন ফুটবলার আশরাফ জোয়ার্দ্দার সাবু বললেন অতীতে ভি.জে স্কুলের খেলা মানে চুয়াডাঙ্গার অধিকাংশ দোকান-পাট বন্ধ। সকলের বাসনা ছিলো গ্যালারিতে বা মাঠে বসে ফুটবল খেলে সময় পার করা। চুয়াডাঙ্গার ফুটবল অঙ্গনের এ চিত্র আজ হারিয়ে গেলেও গতকাল আন্তঃস্কুল-মাদরাসার পশ্চিম জোনের ফাইনালে দর্শক-সমর্থকদের উপস্থিতি আর তীব্রপ্রতিদ্বন্দ্বিতা পূর্ণ ফুটবল খেলা আবারো সেই সোনালি অতীতকে মনে করিয়ে দিলো।

গতকাল বিকেল ৪টায় চুয়াডাঙ্গা স্টেডিয়ামে পশ্চিম জোন ফাইনালে মুখোমুখি হয় চুযাডাঙ্গা ফাজিল মাদরাসা ও ভি.জে সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়। উভয় দলের পক্ষে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন দর্শক সমর্থকরা। খেলার শুরুতেই উভয় দলই পাল্টা-পাল্টি আক্রমণ করতে থাকে। এ আক্রমণের ধারাবাহিকতায় প্রধমার্ধের ১৫ মিনিটে মাদরাসার পক্ষে হাফেজ ফরহাদ গোল করে ১-০ ব্যবধানে দলকে এগিয়ে নেয়। মাঠের মধ্যে ঢুকে পড়ে মাদরাসার দর্শক সমর্থকরা। দর্শকদের সরাতে বেশ বেগও পেতে হয়। এভাবে প্রথমার্ধ শেষ হয়। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ভি.জে স্কুল গোল পরিশোধের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে।

তবে খেলার শেষ দু মিনিটের মাথায় মাদরাসা দলের গোল রক্ষকের ভুলে ভি.জে স্কুলের ১১নম্বর জার্সি পরিহিত খেলোয়াড় লিখন গোল করে সমতা ফেরায়। আবারো মাঠে ঢুকে পড়ে ভি.জে স্কুলের সমর্থকরা। ফলাফল নির্ধারণে শুরু হলো টাইব্রেকার পদ্ধতি। প্রথম কিকে মাদরাসা দলের অধিনায়ক ইমাম হোসেনের গোল দলকে এগিয়েও নেয়। কিন্তু মাদরাসা দলের দু ফরোয়াড পারভেজ ও রাসেলের গোল ব্যর্থতায় ২-১ গোলে এগিয়ে যায় ভি.জে সরকারি ভি.জে সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়। শেষ পর্যন্ত ভি.জে সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় টাইব্রেকারে (১)৩-(১)২ গোলে জয়লাভ করে পশ্চিম জোন চ্যাম্পিয়ন হয়। ভি.জে স্কুলের পক্ষে খেলার মাঠে উপস্থিত ছিলেন প্রধান শিক্ষক শরিফউদ্দীন বিশ্বাস, শরীরচর্চা শিক্ষক জাহিদ, সহকারী শিক্ষক জাহিদুর রহমান, গোলাম মোরেশদ, মাদরাসার পক্ষে উপস্থিত ছিলেন সহকারী শিক্ষক আব্দুল হাই, আবু যায়েদ আনসারী, আ. রশীদ, মোশারোফ হোসেন, আ. সালাম, ফরহাদ হোসেন প্রমুখ। চুয়াডাঙ্গা জেলা ক্রীড়া সংস্থার পক্ষে যুগ্মসম্পাদক তরুণ ক্রীড়া সংগঠক নইম হাসান জোয়ার্দ্দার, ফুটবল পরিচালনা উপকমিটির আহ্বায়ক সাবেক ডিএসএ সম্পাদক মতিয়ার রহমান, কার্যকরী সদস্য ওবাইদুলহক জোয়ার্দ্দার, ফজলুল হক, শহিদুল কদর জোয়ার্দ্দার, বদর খান, মেহেরুল্লাহ মিলু, হাফিজুর রহমান হাপু প্রমুখ। খেলা পরিচালনা করেন আ. সালাম, আজিজুল হক শীল, আ. মালেক, সুমন জোয়ার্দ্দার ও হাফিজুর রহমান।

Leave a comment

Your email address will not be published.