স্কটল্যান্ডের হৃদয় ভেঙে বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজ

মাথাভাঙ্গা মনিটর: আম্পায়ারের বিতর্কিত সিদ্ধান্ত আর ভাগ্যের খানিকটা সহায়তায় বিশ্বকাপে জায়গা করে নিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। হৃদয়ভাঙা হারে বিদায় নিল স্কটল্যান্ড। বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের সুপার সিক্সে নিজেদের শেষ ম্যাচে ডাকওয়ার্থ ও লুইস পদ্ধতিতে ৫ রানে জিতেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ১৯৯ রানের লক্ষ্য তাড়ায় ৩২.৫ ওভারে ৫ উইকেটে ১২৫ রান করে স্কটল্যান্ড। এরপর বৃষ্টি নামলে আর খেলা সম্ভব হয়নি। ডাকওয়ার্থ ও লুইস পদ্ধতিতে সে সময় জয়ের জন্য স্কটিশদের দরকার ছিলো ১৩১ রান। হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে গতকাল বুধবার টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি ওয়েস্ট ইন্ডিজের। ম্যাচের প্রথম বলে ক্রিস গেইলকে ফিরিয়ে দেন সাফিয়ান শরিফ। উইকেট-মেডেন দিয়ে শুরু করা শরিফ পরের ওভারে ফিরিয়ে দেন শাই হোপকে। বেরিয়ে যাওয়া বলে খোঁচা মেরে কট বিহাইন্ড হন ওয়েস্ট ইন্ডিজের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা শুরুর ধাক্কা সামাল দেয় এভিন লুইস ও মারলন স্যামুয়েলসের ব্যাটে। শুরুতে সাবধানী ব্যাটিং করেন লুইস। সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে খেলতে থাকেন শট। ৮৭ বলে ৬৬ রান করে লুইসের বিদায়ে ভাঙে ১২১ রানের জুটি। ৯৬ বলে ফিফটি পান স্যামুয়েলস। তবে ফিরে যান এক বল পরেই। মাইকেল লিস্ককে উড়ানোর চেষ্টায় সীমানায় ক্যাচ দিয়ে শেষ হয় তার ৫১ রানের ইনিংস। স্যামুয়েলসের উইকেটে ধস নামে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ইনিংসে। ৬৩ রানে শেষ ৭ উইকেট হারিয়ে ফেলা দলটি থামে দুইশ রানের আগেই। জেসন হোল্ডার, রোভম্যান পাওয়েল ফিরেন দুই অঙ্ক ছুঁয়ে। এক ছক্কায় ২৪ রান করেন কার্লোস ব্র্যাথওয়েট। উইকেটে বোলারদের জন্য বেশ সহায়তা ছিল। সেটা দারুণভাবে কাজে লাগিয়েছে স্কটল্যান্ড। সেভাবে কখনো গতি পায়নি ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইনিংস। পুরোটা সময় রানের জন্য সংগ্রাম করতে হয়েছে স্টুয়ার্ট লর শিষ্যদের।  স্কটল্যান্ডের দুই পেসার শরিফ ও ব্র্যাড হুইল নেন তিনটি করে উইকেট।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *