শ্রীলঙ্কার কোচের পদ থেকে সড়ে দাঁড়ালেন ফোর্ড

 

মাথাভাঙ্গা মনিটর: ইংল্যান্ডের চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে দলের বাজের পারফরমেন্সের কারণে শ্রীলংকার দলের প্রধান কোচের পদ থেকে সড়ে দাঁড়িয়েছেন গ্র্যাহাম ফোর্ড। আগামী ৩০ জুন থেকে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের জন্য ফিল্ডিং কোচ নিক পোথাস দলের দায়িত্ব নিবেন বলে এসএলসি সূত্রে জানানো হয়েছে। এই সিরিজে একটি টেস্ট ম্যাচও রয়েছে। আগামী ১৪ জুলাই শুরু হবে টেস্ট ম্যাচটি। গত বছর ফেব্রুয়ারিতে শ্রীলংকা দলের দায়িত্ব নিয়েছিলেন ফোর্ড। ১৫ মাসে তার অধীনে শ্রীলংকা টেস্ট সিরিজে অস্ট্রেলিয়াকে ৩-০ ব্যবধানে হোয়াইট ওয়াশ করে। কিন্তু ২০১৬ সালের টি২০ বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ডের বাঁধা পেরুতে পারেনি। সদ্য সমাপ্ত চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতেও তাদের গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিতে হয়েছে। চলতি বছরের শুরুতে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে টেস্টে ৩-০ ও ওয়ানডেতে ৫-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশের লজ্জায় পড়ে লঙ্কানরা। কিন্তু বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথমবারের মত টেস্ট পরাজয় কোনভাবেই মেনে নিতে পারেনি শ্রীলংকা ক্রিকেট কর্তৃপক্ষ। এরপরপরই চ্যাম্পিয়নস ট্রফি শেষ হলে ৫৬ বছর বয়সী ফোর্ডের সালে এসএলসি কর্তৃপক্ষের বেশ কয়েক দফা আলোচনা হয়। তখনই ইঙ্গিত পাওয়া গিয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকায় নিজ দেশে ছুটিতে কাটাতে যাবার আগে তার সাথে আর বোর্ড কোন ধরনের চুক্তিতে যাচ্ছেনা। এর আগে দক্ষিণ আফ্রিকা দলেরও কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন ফোর্ড। চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ধীর গতির ওভার রেটের জন্য এসএলসি সভাপতি থিলাঙ্গা সুমাথিপালা সকলের সামনে ফোর্ডের সমালোচানা করেছিলেন। ঐ ম্যাচে নিজেদের ওভার শেষ করতে প্রায় ৩৭ মিনিট বেশী সময় নিয়েছিল লঙ্কান বোলাররা। এর ফলে অস্থায়ী অধিনায়ক উপল থারাঙ্গাকে দুই ম্যাচ বহিষ্কার করা হয়। ঐ সময়ই গুজব উঠেছিল ফোর্ড তার চাকরি হারাতে যাচ্ছেন।যদিও ঐ সময় সাবেক অধিনায়ক কুমার সাঙ্গাকারা ফোর্ডের পক্ষেই কথা বলেছিলেন। এর আগে ২০১২-১৪ সাল পর্যন্ত শ্রীলংকার কোচ হিসেবে বেশ সফল ছিলেন ফোর্ড। ঐ সময়ও নিজের থেকে চুক্তি বাড়ানোর ব্যাপারে অস্বীকৃতি জানিয়েছিলেন এই দক্ষিণ আফ্রিকান। শ্রীলংকার চাকুরী ছেড়ে তিনি ইংলিশ কাউন্টি সারেতে যোগ দেন। তার অধীনে সারে কাউন্টি ক্রিকেটের শীর্ষ বিভাগে উন্নীত হবার যোগ্যতা লাভ করেছিলো।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *