শেষ ম্যাচ জিতে সিরিজ বাঁচাল ওয়েস্ট ইন্ডিজ

মাথাভাঙ্গা মনিটর: অদ্ভুত এক সিরিজই গেল নিউজিল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজের! প্রথম ম্যাচটাই দেখুন। ১৫৭ রানের সহজ লক্ষ্যকে কঠিন বানিয়ে জিতলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে ক্রিকেটবিশ্ব দেখলো কোরি অ্যান্ডারসনের রেকর্ড সৃষ্টি করা সেই বিস্ফোরক ইনিংস। বাজে ব্যাটিঙের দৃষ্টান্ত স্থাপন করে সিরিজ পরাজয়ের দোরগোড়ায় দাঁড়িয়ে থাকা ক্যারিবিয়ানরা হ্যামিল্টনে শেষ ম্যাচে কি ঝলকটাই না দেখাল! রানের পাহাড় গড়ে ব্ল্যাক ক্যাপসদের হারালো ২০৩ রানে। একই সাথে সিরিজও বাঁচালো ওয়েস্ট ইন্ডিজ। চোখে সিরিজ জয়ের স্বপ্ন এঁকে টস জিতে গতকাল ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ব্যাটিঙে পাঠান নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক ব্রেন্ডন ম্যাককালাম। ব্ল্যাক ক্যাপস অধিনায়কের সিদ্ধান্তকে ‘সাধুবাদ’ জানিয়ে শুরু থেকেই চড়াও হন ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটসম্যানরা। মনের খায়েশ মিটিয়ে কার্ক এডওয়ার্ডস ও অধিনায়ক ডোয়াইন ব্রাভো তুলে নেন অসাধারণ দুটো ঝোড়ো শতক। সাথে ছিলো কাইরন পাওয়েলের ‘কুইক ফিফটি’। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৪ উইকেটে ৩৬৩। বিরাট লক্ষ্য দেখেই কিনা শুরুতে ভড়কে যায় নিউজিল্যান্ড! উইকেট পড়তে থাকে মুড়ি-মুড়কির মতো। ৯৬ রানেই নিউজিল্যান্ডের ৬ উইকেট হাওয়া! জ্বালানি ফুরিয়ে যাওয়া গাড়ির মতো খুঁড়িয়ে চলা ইনিংসটা থামে ২৯.৫ ওভারে ১৬০ রানে। হারতে হয় ২০৩ রানের বিশাল ব্যবধানে। চতুর্থ ম্যাচেই এগিয়ে যাওয়া সিরিজটা শেষমেশ ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাথে ভাগাভাগি করার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকতে হয় নিউজিল্যান্ডকে। নিউজিল্যান্ডের সর্বনাশের পেছনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের এডওয়ার্ডসের ক্যারিয়ার সেরা অপরাজিত ১২৩ (১০৮ বলে), ব্রাভোর ১০৬ (৮১ বলে) ও পাওয়েলের ৭৩ রান (৪৪ বলে) তো ছিলোই, তবে সর্বনাশের ষোলোকলা পূর্ণ করেন নিকিতা মিলার। ৪ উইকেট নিয়ে ব্ল্যাক ক্যাপসদের মেরুদণ্ড ভাঙেন এ স্পিনার। তবে অলরাউন্ডার নৈপুণ্যে দেখিয়ে ম্যাচ সেরা ব্রাভোই।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *