মেহেরপুরের আমঝুপি মাঠে হকি প্রশিক্ষণ

মেহেরপুর অফিস: অনূর্ধ্ব-১৮ এশিয়ান কাপ হকিতে রানারআপ বাংলাদেশ। হকিতে এমন অসংখ্য প্রতিভা লুকিয়ে রয়েছে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে যাদের খবর কেউ রাখে না। সঠিক পরিচর্যা, প্রশিক্ষণ ও প্রয়োজনীয় সরাঞ্জমাদি পেলে হকিতেও এগিয়ে যেতে পারে দেশ। যার প্রমাণ মিলেছে মেহেরপুরে। হকি প্রতিযোগিতার জন্য জেলায় তৈরি করা হকি দলটি জাতীয় পর্যায়ে সফলতার মুখ দেখছে। কিন্তু জেলা ক্রীড়া সংস্থার তদারকি, প্রশিক্ষণ ও সরাঞ্জমের অভাবে হারিয়ে যেতে বসেছে দলটি।

                মেহেরপুরে হকি খেলার প্রতিযোগিতার দেখা মেলে না। তারপরও খেলাটির সম্প্রসারণ ঘটাতে ২০১৩ সালে জাতীয় পর্যায়ে হকিতে অংশ নেয়ার জন্য আমঝুপি মাধ্যমিক বিদ্যালয় নিজ উদ্যোগে তৈরি করে একটি হকি দল। ২০১৪ সালে বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের কোচ তরিকুল ইসলামের নেতৃত্বে এক মাসের প্রশিক্ষণও প্রদান করা হয়। পরপর দু বছর জাতীয় পর্যায়ে হকিতে অংশ নিয়ে কয়েকটি জেলাকে পরাজিত করে দলটি। এতো সাফল্যের পরও দলটিকে সহযোগিতার জন্য এগিয়ে আসেনি জেলা ক্রীড়া সংস্থা।

                বর্তমানে খেলার সরাঞ্জমসহ নানা সঙ্কটে ভূগছে দলটি। নিয়মিত প্রশিক্ষণের কোন ব্যবস্থা নেই। তবে সম্প্রতি জেলায় হকি খেলোয়াড় তৈরির লক্ষ্যে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছে জাতীয় হকি দলের গোলরক্ষক আবু সাঈদ নিপ্পন। ছুটির ফাঁকে জেলায় এসে প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন খেলোয়াড়দের।

                আমঝুপি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ক্রীড়া শিক্ষক শরিফুল ইসলাম জানান, গেল দু বছরে এক সেট হকি ও পোশাক দিয়ে কোনো রকমেই অনুশীলন করে যাচ্ছেন খেলোয়াড়রা। নেই গোল রক্ষকের ড্রেস। অনেক স্টিক ভেঙে গেছে। এগুলো কিনে দেবার মতো আর্থিক সামর্থ্য নেয় তাদের। এতো সফলতার পরও জেলা ক্রীড়া সংস্থা অথবা জনপ্রতিনিধিরা কেউ এগিয়ে আসেননি। এভাবে চলতে থাকলে খেলাটাই ছেড়ে দেবে অনেক খেলোয়াড়। হকি দলটিকে বাঁচাতে সকলকে এগিযে আসার আহ্বান জানান তিনি।

                জাতীয় হকি দলের গোলরক্ষক আবু সাইদ নিপ্পন জানান, দলে প্রতিভাবান অনেক খেলোয়াড় আছে। তাদের পরিচর্যা করতে পারলে জাতীয়মানের খেলোয়াড় বের হয়ে আসবে। ছুটির ফাঁকে মেহেরপুরে এসে প্রশিক্ষণ দেওয়াসহ সব ধরনের সহযোগীতার আশ্বাস দিলেন তিনি। ভবিষ্যতে জেলায় একটি হকি একডেমী করার পরিকল্পনা রয়েছে তার।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *