মেসিতে সওয়ার হয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে আর্জেন্টিনা

মাথাভাঙ্গ মনিটর: অবশেষে ইরানের বিপক্ষে কষ্টার্জিত জয় পেলো আর্জেন্টিনা। গতকাল শনিবার রাতে ইরানকেহারাতে ঘাম জড়াতে হয়েছে তাদের। ৯০ মিনিটের মাথায় মেসি একমাত্র গোলটি করেদলকে জিতিয়ে দেন। জয়টা কষ্টার্জিত হলেও দ্বিতীয় পর্বে উঠে গেল মেসির দল।

নির্ধারিত ৯০ মিনিটেও গোলের দেখা পায়নি আর্জেন্টিনা। ইরানের বিপক্ষেগোলশূণ্য ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়তে হবে, এমন শঙ্কাই হয়তো চেপে বসেছিলোআর্জেন্টিনার সমর্থকদের মনে। বারবার আক্রমণ চালালেও ইরানের জমাট রক্ষণভাগেকোনো ফাটলই ধরাতে পারছিলেন না আলেসান্দ্রো সাবেলার শিষ্যরা। কিন্তুঅতিরিক্ত সময়ে সত্যিকারের অধিনায়কের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন লিওনেলমেসি। দুর্দান্ত এক গোল করে আর্জেন্টিনাকে উদ্ধার করেছেন এসময়ের অন্যতমসেরা এই ফুটবলার। ১-০ গোলের ঘামঝড়ানো জয় দিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডও নিশ্চিতকরে ফেলেছে আর্জেন্টিনা।প্রথম ম্যাচের মতো আজ আর কোনো পরীক্ষা-নিরীক্ষার মধ্যে যাননিআর্জেন্টিনার কোচ আলেসান্দ্রো সাবেলা। প্রথম একাদশেই ছিলেন গঞ্জালোহিগুয়েইন আর ফার্নান্দো গ্যাগো। প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী ইরানের বিপক্ষে শুরুথেকে আক্রমণাত্মক ফুটবলই খেলেছেন মেসি-আগুয়েরোরা। পুরো ম্যাচের ৭৭ শতাংশসময়ই বলের দখল ছিলো আর্জেন্টিনার কাছে। কিন্তু ইরানের অতি রক্ষণাত্মককৌশলের কারণে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে বল পাঠাতে পারেননি সাবেলার শিষ্যরা।

ইরান শুরু থেকেই নিজেদের রক্ষণটা সামলেছে খুব ভালোভাবে। প্রথমার্ধেআর্জেন্টিনা খুব বেশি ভীতিও ছড়াতে পারেননি ইরানের রক্ষণভাগে। দু-তিনটিসুযোগ তৈরি করলেও সেগুলো থেকে গোল পায়নি মেসিরা। ২১ মিনিটের মাথায়আগুয়েরোর একটি শট রুখে দিয়েছেন ইরানের গোলরক্ষক আলিরেজা হাজিজি। ৩৬মিনিটে মেসির ফ্রি-কিক থেকে মাথা ছুঁইয়েছিলেন এজেকিয়েল গারাই। কিন্তুআর্জেন্টাইন এই ডিফেন্ডারের হেড চলে যায় ইরানের গোলপোস্টের কিছুটা ওপরদিয়ে।দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ইরানও পেয়েছিলো ভালো একটি গোলের সুযোগ।কিন্তু ৫৩ মিনিটের মাথায় সেই সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি ইরানের স্ট্রাইকাররেজা ঘুচান্নেজাদ। দু মিনিট পরে পেনাল্টির আবেদনও উঠেছিল ইরান শিবিরথেকে। ফাউল করেছিলেন জাবালেতা। কিন্তু সেই আবেদনে সাড়া দেননি সার্বিয়ানরেফারি। ৬৬ মিনিটে আরও একটি গোলের সুযোগ পেয়েছিলো ইরান। আসখান দেজাগেহেরদুর্দান্ত একটি শট রুখে দিয়েছিলেন আর্জেন্টিনার গোলরক্ষক সার্জিও রোমেরো।

ইরানের বিপক্ষে মেসির একটা ট্রেডমার্ক দৌড় দেখা গিয়েছিলো ৬০মিনিটের মাথায়। আর্জেন্টিনার সমর্থকেরা হয়তো অনেক আশাবাদীও হয়েছিলেন।কিন্তু আর্জেন্টাইন অধিনায়কের শট চলে যায় গোলপোস্টের কিছুটা বাইরে দিয়ে।ম্যাচের শেষ ১৫ মিনিট ইরানের রক্ষণভাগে একের পর এক আক্রমণ করে গেছেনআর্জেন্টিনার খেলোয়াড়েরা। ইরানও সেসব আক্রমণ ঠেকাতে নিয়োগ করেছিলোনিজেদের সর্বোচ্চ শক্তি। সফলও হয়েছিলো তারা। কিন্তু অতিরিক্ত সময়ের প্রথমমিনিটে মেসি ম্যাজিকে বদলে যায় ম্যাচের ফলাফল। ইরানের পেনাল্টি বক্সেরবাইরে থেকে দুর্দান্ত একটি শটে বল জালে জড়িয়েছেন আর্জেন্টিনার এই তারকাফরোয়ার্ড।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *