মাশরাফি সেরা নেতা : উঠতিদের সহায়ক অভিজ্ঞ সাকিব

স্টাফ রিপোর্টার: প্রধান কোচ না থাকায় দুঅধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা ও সাকিব আল হাসানের দায়িত্ব এবার অনেক বেশি। ইমরুল কায়েস মনে করছেন, বাড়তি দায়িত্ব পালনের সামর্থ্য দুজনেরই রয়েছে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১০ বছর হতে চললো ইমরুলের। এখনও বাঁহাতি ওপেনার পায়ের নিচের মাটি খুঁজে ফিরছেন। তার বাজে সময়ে সব সময়ই পাশে থেকেছেন ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি। তিনিই ইমরুলের কাছে সেরা অধিনায়ক।  মাশরাফি ভাই সবসময় অনুপ্রাণিত করার জন্য, সব সময় তাতিয়ে দেয়ার মতো কথা বলেন, নেতা হিসেবে তিনি সেরা। কেউ ভালো করুক, খারাপ করুক পাশে থাকেন। টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাকিবের অভিজ্ঞতা সবচেয়ে বেশি। ইমরুল মনে করেন, বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে তার খেলার অভিজ্ঞতা উঠতি ক্রিকেটারদের জন্য সব সময়ই সহায়ক। সাকিব অনেক অভিজ্ঞ। বাইরে খেলে, তার অভিজ্ঞতাগুলো শেয়ার করে, কি করলে ভালো হয়। আমার মনে হয়, এটা বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য ও উঠতি খেলোয়াড়দের জন্য ইতিবাচক। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে সব ম্যাচ বাজেভাবে হারা বাংলাদেশের সামনে ঘুরে দাঁড়ানোর চ্যালেঞ্জ। নিজেদের সেরা ক্রিকেট খেললে দেশের মাটিতে না জেতার কোনো কারণ দেখেন না ইমরুল। দেখুন যেটা হয়ে গেছে, তা নিয়ে চিন্তা করে লাভ নেই। সামনের দিকে যে সিরিজগুলো আছে সেগুলোর দিকে মনোযোগ দেয়া ভালো। সেই সিরিজগুলো নিয়ে চিন্তা করলে আমাদের জন্য ভালো। সবাই জানে, আমাদের কন্ডিশনে আমরা কেমন দল। এটা মুখে বলার থেকে যদি কাজ করে দেখাতে পারি তাহলে সেটা ভালো হবে। ত্রিদেশীয় সিরিজে বাংলাদেশের দুপ্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা ও জিম্বাবুয়ে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *