মহারাজের ৪ উইকেট : দক্ষিণ আফ্রিকার লক্ষ্য ৩৩১

 

মাথাভাঙ্গা মনিটর: উইকেটে ছিলেন অ্যালেস্টার কুক ও গ্যারি ব্যালান্স, অপেক্ষায় ছিলেন জো রুট, বেন স্টোকসরা। কিন্তু চতুর্থ দিন সকালে শুধুই তাদের আসা-যাওয়ার মিছিল। দক্ষিণ আফ্রিকার দুর্দান্ত বোলিং সামলে ইংল্যান্ডকে টানলেন জনি বেয়ারস্টো।লর্ডস টেস্টের চতুর্থ দিনে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ২৩৩ রানে অলআউট হয়েছে ইংল্যান্ড। চতুর্থ ইনিংসে দক্ষিণ আফ্রিকার লক্ষ্য ৩৩১। ইংল্যান্ড দিন শুরু করেছিলো ১ উইকেটে ১১৯ রান নিয়ে। ৫৯ রান নিয়ে উইকেটে ছিলেন কুক। থিতু হলে বড় ইনিংস খেলাই তার অভ্যাস। তবে এদিন ফিরলেন আর ১০ রান যোগ করেই। কুককে ফেরানোর পর দুর্দান্ত স্পেলে মর্নে মর্কেল তুলে নিলেন আগের দিনের আরেক অপরাজিত ব্যাটসম্যান গ্যারি ব্যালান্সকেও। এরপর কাগিসো রাবাদা ও কেশভ মহারাজের ছোবল। প্রথম ইনিংসে দুর্দান্ত জুটি গড়া জো রুট ও মইন আলীকে বোল্ড করেন মহারাজ। প্রথম ইনিংসের মত আবারও বেন স্টোকসকে ফেরান রাবাদা। তবে সেবার অগ্রহণযোগ্য কথা বলে নিষেধাজ্ঞা পাওয়ার পর এবার উদযাপন উল্টো। আউট করার পর মুখে আঙুল চেপে ধরলেন। সতীর্থরা এসে চেপে ধরলেন মুখ। কথা বলা বারণ! রানের খাতা খুলতে পারেননি লিয়াম ডসন ও স্টুয়ার্ট ব্রড। ৪৩ রানের মধ্যে ইংল্যান্ড হারায় ৭ উইকেট। দক্ষিণ আফ্রিকার লক্ষ্যটা হতে পারত আরও কম, যদি ৭ রানে বেয়ারস্টোর ক্যাচটি নিতে পারতেন ভার্নন ফিল্যান্ডার। জীবন পেয়ে বেয়ারস্টো করেন ৫১ রান। দশে নেমে মার্ক উডের ২৮ রানও ছিলো মহামূল্য। লিড তাই যায় তিনশর ওপারে।

চোট পেয়ে আগের দিন বোলিং করতে না পারা ফিল্যান্ডার এদিন বল করেছেন। তবে কাজ সেরেছেন অন্য তিন বোলারই। চার উইকেট নিয়ে সফলতম বাঁহাতি স্পিনার মহারাজ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *