মমিনুলের ব্যাটে ঝড়

মাথাভাঙ্গা মনিটর: ছোট্ট কাঁধে যেন চেপে বসেছিলো চাপের পাহাড়। মাত্র ৮ রান তুলতেই নেই বাংলাদেশের দু উইকেট! মাথার ওপর নিউজিল্যান্ডের চাপিয়ে দেয়া ৪৬৯ রানের বোঝা। মাত্র দিনকয় আগে ২২-এ পা রাখা, নিজের মাত্র চতুর্থ টেস্ট খেলতে নামা এক ক্রিকেটারের জন্য এর চেয়ে কঠিন অগ্নিপরীক্ষা আর কী হতে পারে। কিন্তু মমিনুল হক বুঝিয়ে দিলেন, অ্যাটাক ইজ দ্য বেস্ট ডিফেন্স। খোলসে ঢুকে না গিয়ে পাল্টা আক্রমণে ছত্রখান করে দিতে চাইলেন কিউয়ি রণকৌশল। ফিফটি তুলে নিলেন মাত্র ৩৬ বলে। ফিফটি পর্যন্ত পৌঁছুতেই মেরেছেন দশটি চার!

দিন শেষে ৭১ বলে ৭৭ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি। টেস্টে তৃতীয় ফিফটি করা মমিনুলের এটাই ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস। প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরি থেকে মাত্র ২৩ রান দূরে। শুরুর বিপর্যয়ও সামলে নিয়েছে বাংলাদেশ। মমিনুল আর মার্শাল আইয়ুবের ৯৫ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে আর কোনো উইকেট না হারিয়ে ১০৩ রানে শেষ করেছে চট্টগ্রাম টেস্টের দ্বিতীয় দিন। অভিষিক্ত মার্শাল আইয়ুব ২১ রানে অপরাজিত থেকে প্রার্থিত সঙ্গ দিয়ে যাচ্ছেন মমিনুলকে। ঘরের মাঠে বড় কিছু করার প্রতিশ্রুতি দেয়া তামিম ইকবাল ক্যারিয়ারের প্রথম গোল্ডেন ডাক (প্রথম বলেই আউট) নিয়ে ফিরেছেন। মমিনুল চট্টগ্রামের ছেলে নন। তবে সাগরকোলেই তার জন্ম। কক্সবাজারের ছেলে হয়ে যেন চট্টগ্রামের দর্শকদের মনের খেদটুকু পুষিয়ে দেয়ার চোয়ালবাঁধা প্রজ্ঞিতা নিয়েই ব্যাট করে চলেছেন মমিনুল। বাংলাদেশের পক্ষে অবশ্য দ্রুততম ফিফটি এটি নয়। ২৬ বলে (২৭ মিনিটে) ফিফটি করেছিলেন মোহাম্মদ আশরাফুল, মিনিটের হিসেবে যেটি টেস্টের শতাব্দী প্রাচীন ইতিহাসেরই দ্রুততম ফিফটি ছিলো। ২৪ বলে ৪০ করে ফেলার পর মনে হচ্ছিলো, মমিনুলও বুঝি টেস্ট ইতিহাসের দ্রুততম ফিফটির সংক্ষিপ্ত তালিকায় ঢুকে পড়বেন। তা অবশ্য হয়নি। তাতে বাংলাদেশের আক্ষেপ করারও কথা নয়। পরিস্থিতির দাবি মেনে মমিনুল যে ফিফটির পর কিছুটা শান্ত হয়েছেন, তাতেই খুশি হওয়ার কথা অধিনায়কের।

নিজের পঞ্চম বলেই ব্রেসওয়েলকে চার মেরে শুরু হয়েছিলো ঝড়টা। মার্টিনের করা পরের ওভারে মেরেছেন টানা তিন চার। ব্রেসওয়েলের করা পরের ওভারেও এসেছে তিন চার। অ্যান্ডারসনকে চার মেরেই পৌঁছেছেন ফিফটিতে। এমন নয় চোখ বুজে ধুমধাড়াক্কা ব্যাট চালিয়ে যাচ্ছেন। ক্রিকেটীয় কেতা মেনেও ব্যাট করে যে ঝড় তোলা যায়, সেটিও যেন বুঝিয়ে দিচ্ছেন মমিনুল। ফিফটির পর অবশ্য ব্যাটে লাগাম লাগিয়েছেন। পরিস্থিতি বুঝে খেলছেন। ফিফটির পর পরের ৩৫ বলে ২৪ রান। ডাক নাম সৌরভ। মমিনুলের ব্যাটে পাওয়া যাচ্ছে বড় কিছুরই সৌরভ!

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *