ভয় না পেয়ে মাঠে আসুন : সমর্থকদের উদ্দেশে আইসিসি

মাথাভাঙ্গা মনিটর: সন্ত্রাসী হামলায় ভীত না হয়ে মাঠে এসে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি উপভোগ করতে ক্রিকেট ভক্তদের অনুরোধ জানালো ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। আগামী পয়লা জুন থেকে ইংল্যান্ডে শুরু হচ্ছে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির অষ্টম আসর। টুর্নামেন্ট শুরুর আগে গেল সোমবার রাতে ম্যানচেস্টারের অ্যারোনায় মার্কিন গায়িকা আরিয়ানা গ্রান্ডের কনসার্টে সন্ত্রাসী হামলায় ২২ ব্যক্তি নিহতও ৫০ জনের বেশি আহত হয়। এতে নড়ে চড়ে বসে বিশ্ব ক্রিকেটের নির্বাহী সংস্থাটি। টুর্নামেন্ট সংশ্লিষ্ট সকলকে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দানে আশ্বস্ত করার পর এবার ক্রিকেট ভক্তদের উদ্দেশ্যেও আলাদা বার্তা দিলো আইসিসি। নির্ভয়ে মাঠে এসে চ্যাম্পিয়ন্স খেলার দেখার অনুরোধ জানালো আইসিসি।

আইসিসি অ্যান্টিকরাপশন ও সিকিউরিটি ইউনিটের (আকসু) পক্ষ থেকে ক্রিকেট ভক্তদের জন্য সর্বোচ্চ নিরাপত্তা প্রদানের নিশ্চয়তা দেয়া হয়েছে। আকসু চেয়ারম্যান ফ্লানাগান বলেন, ‘সবাইকে নিশ্চিত করছি যে, এখানে আতঙ্কের কোনও কারণ নেই। সবাইকে বলব মাঠে আসতে। কেউ যদি কিছু বলে, বলতে দিন, কিন্তু ম্যাচে আসুন। সকলের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দিতে আমরা প্রস্তুত।’

নিরাপত্তা দিতে গিয়ে ভক্তদের কিছুটা বিড়ম্বনায় পড়তে হতে পারে স্টেডিয়ামে আসা ভক্তদের। অন্যান্য সময়ের মতো এবার আর পিকনিক মুডে মাঠে প্রবেশ করতে পারবে না ভক্তরা। স্টেডিয়ামে প্রবেশকালে সকলকে তল্লাশি করা হবে জানিয়ে আইসিসি জানায়, ‘ম্যানচেস্টার আক্রমণের পর খেলার মাঠেও নিরাপত্তার ব্যবস্থা বাড়ানো হয়েছে। যে কারণে তল্লাশীকালে একটু হয়তো বেশি সময় লাগবে। গাড়ি থেকে ব্যাগ সব কিছুই খুঁটিয়ে দেখা হবে। দর্শকদের সাথে যাই-ই থাকুক না কেন, সবই পরীক্ষা করে দেখা হবে। যেভাবে ক্রিকেট মাঠে পিকনিকের আবহ থাকে সেটা হয়তো এবার দেখা যাবে না। তাই সকলকে সবকিছুই মানিয়ে নিতে হবে।’

সমর্থকদের উদ্দেশ্যে আইসিসি আরও বলেছে, ‘ভয়কে দূরে সরিয়ে রেখে মাঠে আসতে হবে। টুর্নামেন্ট সফলভাবে আয়োজন করতে আইসিসি সর্বাত্মক চেষ্টা করছে।’

লন্ডনের কেনিংটন ওভালে বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড ম্যাচ দিয়ে আগামী পয়লা জুন থেকে মাঠে গড়াবে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির অষ্টম আসর। একই ভেন্যুতেই ১৮ জুন ফাইনাল ম্যাচ দিয়ে পর্দা নামবে বিশ্বকাপের পরই দ্বিতীয় মর্যাদাকর আসর চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *