ভারতের কাছে হেরে ক্রিকেটের জানাজা পড়লো পাকিস্তানি সমর্থকরা

 

মাথাভাঙ্গা মনিটর: ভারত ও পাকিস্তান। ভৌগোলিক অবস্থান, রাজনীতি, সংস্কৃতিসহ মানুষের স্বাভাবিক প্রকাশ ভঙ্গিতে প্রতিবেশী দেশ দুটো বরাবরই চির প্রতিদ্বন্দ্বী। আর ভদ্রলোকের খেলা ক্রিকেট নিয়ে দেশ দুটির উত্তেজনার পারদ সব সময়ই থাকে তুঙ্গে।

তবে চির প্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের কাছে যখনই হারে পাকিস্তান, করাচি থেকে লাহোর- সর্বত্রই দেখা যায় রাস্তা জুড়ে বিক্ষোভ। কুশপুতুল পোড়ানো থেকে ক্রিকেটারদের বাড়ির সামনে বিক্ষোভ বাদ যায় না কিছুই। এর পরে তাদের যাবতীয় রাগ গিয়ে পড়ে টেলিভিশনের ওপর। চায়ের দোকান থেকে শুরু করে নিজের বাড়ির টেলিভিশন, কোনোটাই বাদ পড়ে না তাদের ভাঙচুরের তালিকা থেকে। এবারে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ শুরুর আগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও দেখা গিয়েছিলো, সেখানকার বেশ কিছু রেস্তোরাঁয় টেলিভিশনকে জাল দিয়ে ঘিরে দেওয়া হয়েছে। ভারতের কাছে হারার পর পাকিস্তানের এই ছবিগুলোর সঙ্গে মোটামুটি পরিচিত ক্রিকেটবিশ্ব।

তবে গত রোববার যা ঘটেছে, তা বোধহয় এর আগে কখনোই ঘটেনি। সরফরাজদের শোচনীয় হারে বিমর্ষ সমর্থকরা একেবারে পাকিস্তানি ক্রিকেটের জানাজাই সেরে ফেললো। সেই ভিডিও নিয়ে এখন সরগরম সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম। পাকিস্তানের এক বিদ্যুতকর্মী তার টুইটার পেজে এমনই একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, কয়েকজন পাক সমর্থক তাদের সামনে দু’টি ব্যাট শুইয়ে রেখে কাঁদতে কাঁদতে শোক জানাচ্ছেন। কেউ মারা গেলে ইসলাম ধর্মমতে যেভাবে তার জানাজা সম্পন্ন হয় ঠিক সেভাবেই। এছাড়া ইনজুরির কারণে টুর্নামেন্ট থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার করা ওয়াহাব রিয়াজ বুধবার এক টুইট বার্তায় বলেন, ‘আমার পারফরমেন্স জাতি ও দলকে ছোট করেছে। আমি আমার সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছি। কিন্তু তা যথেষ্ট ছিলো না। আমার হৃদয় ভেঙে গেছে।’ পাকিস্তান দলের পারফরমেন্স নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হচ্ছে এবং সাবেক অধিনায়ক শহিদ আফ্রিদি নির্দিষ্ট করে ওয়াহাবের সমালোচনা করেছেন। এদিকে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ভারতের কাছে পাকিস্তানের অসহায় আত্মসমর্পণে পাকিস্তানের কিংবদন্তি ক্রিকেটার ও রাজনীতিবিদ ইমরান খানও নিজের হতাশা টুইটারে ব্যক্ত করেছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *