ব্রাজিলীয় ফুটবলে ওলট-পালট

মাথাভাঙ্গা মনিটর: অনেকের চোখেই ব্রাজিলের এবারের বিশ্বকাপটা ছাড়িয়ে গেছে ১৯৫০ সালের সেইমারাকানা বিপর্যয়ের দুঃসহ স্মৃতিকেও। সেবার বিশ্বকাপের শেষ ম্যাচে উরুগুয়েরকাছে খুবই আকস্মিকভাবে ২-১ গোলে হেরে স্বপ্নভঙ্গ হয়েছিলো ব্রাজিলের। আরএবারের বিশ্বকাপে ব্রাজিল যেন এক বিধ্বস্ত জনপদের নাম। সেমিফাইনালেঅনেকগুলো লজ্জাজনক রেকর্ডের জন্ম দিয়ে জার্মানির কাছে ৭-১ গোলের বিশালব্যবধানে হেরেছে সেলেসাওরা। তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচেও জোটেনিসান্ত্বনার জয়। হল্যান্ডের বিপক্ষে তিন গোল হজম করে মাঠ ছাড়তে হয়েছেস্বাগতিকদের।১৯৫০ সালে সেই মারাকানা বিপর্যয়ের পর আমূল পরিবর্তন এসেছিল ব্রাজিলেরফুটবল অঙ্গনে। দলের জার্সি পর্যন্ত বদলে ফেলেছিলো সেলেসাওরা। এবার নিজেদেরমাটিতে আরেকটি বিশ্বকাপ বিপর্যয়ের পর আবারও একটা বড় পরিবর্তনের মধ্যদিয়েযাচ্ছে ব্রাজিলিয়ান ফুটবল।নিজ দেশে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপটি যেকোনো মূল্যেই জিততে চেয়েছিল ব্রাজিল। সেকারণেই হয়তো কোচ হিসেবে বেছে নেয়া হয়েছিলো অভিজ্ঞ লুইস ফেলিপে স্কলারিকে।২০০২ সালে তার অধীনেই শেষবারের মতো বিশ্বকাপ জিতেছিল ব্রাজিল। কিন্তু ‘বিগফিল’ এবার ব্যর্থ। ২০০২ সালে বিশ্বকাপ জয়ের পর মাথা উঁচু করেই কোচের পদথেকে সরে দাঁড়িয়েছিলেন স্কলারি। আর এবার সরে দাঁড়ালেন জার্মানির কাছে ৭-১গোলে হারের গ্লানি নিয়ে,লজ্জায় মুখ ঢেকে।

স্কলারির পর ব্রাজিলের নতুন কোচ কে হবেন,সেই আলোচনাতেই এখন সরগরমদেশটির ফুটবল অঙ্গন। করিন্থিয়ানসের সাবেক কোচ টিটেকেই অনেকেই দেখছেনফেবারিট হিসেবে। ২০১২ সালে করিন্থিয়ানস ক্লাব বিশ্ব ক্লাব ফুটবলের শিরোপাজিতেছিলো টিটের হাত ধরেই।সাও পাওলোর কোচ মুরিসে রামালহোর নামও এসেছে বেশ জোরেশোরে। ২০১০ সালেওব্রাজিলের কোচের দায়িত্ব নেয়ার প্রস্তাব এসেছিলো রামালহোর কাছে। কিন্তু সেসময় তাকে ছাড়তে রাজি হয়নি ফ্লুমিনেজ। ২০১১ সালে সান্তোসকে কোপালিবার্তোদোরেস শিরোপাও জিতিয়েছিলেন এ রামালহো।ইতোমধ্যেই কৌশলগত সমন্বয়কারী কার্লোস আলবার্তো পাহেইরাকে সরিয়ে সেই দায়িত্ব দেয়া হয়েছে ব্রাজিলের সাবেক তারকা ফুটবলার লিওনার্দোকে।আগামী বছর ব্রাজিলিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের সভাপতির পদ থেকেও সরেদাঁড়াবেন হোসে মারিয়া মারিন। তার জায়গায় দায়িত্ব নেবেন মার্কো পোলো ডেলনিরো। ৭৩ বছর বয়সী এ আইনজীবীর ওপর অবশ্য একেবারেই ভরসা নেই ব্রাজিলেরসাবেক তারকা স্ট্রাইকার রোমারিওর। তিনি বলেছেন, আপনারা কি মনে করেন যে এমানুষটা কোনো পরিবর্তন আনতে পারবেন?আমি নিশ্চিত যে তিনি পারবেন না।এমনবিরোধিতার মুখে পড়লে হয়তো ব্রাজিলিয়ান ফুটবলের সর্বোচ্চ পদটার জন্যও নতুনকারও কথা ভাবতে হতে পারে দেশটির ফুটবল অঙ্গনকে।

Leave a comment

Your email address will not be published.