বিশ্বকাপে রেফারির হাতে থাকবে স্প্রে!

0
34

মাথাভাঙ্গা মনিটর: বিশ্বকাপ নিয়ে ফুটবলপ্রেমীদের আগ্রহের কমতি থাকে না। আলোচনা-সমালোচনাও চলে বিস্তর। ২০১৪ সালের ফুটবল বিশ্বকাপের নতুন আলোচনা বিষয়বস্তু হতে পারে স্প্রে! এতোদিন ফুটবল মাঠে রেফারির কাছে বাঁশি আর দু রকমের কার্ড থাকলেই চলতো। কিন্তু ব্রাজিলে অনুষ্ঠিত এবারের বিশ্বকাপে রেফারির হাতে বিশেষ ধরণের স্প্রেও থাকবে তাদের কাছে। ফ্রি কিকের সময় স্প্রে দিয়েই খেলোয়াড়দের নিয়ন্ত্রণ করবেন রেফারি। স্বয়ং ফিফা সভাপতি সেপ ব্ল্যাটার এ কথা জানিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, ২০১৪ বিশ্বকাপের প্রতিটি ম্যাচে রেফারির কাছে বাঁশি, লাল আর হলুদ কার্ডের পাশাপাশি এবার এক ধরনের স্প্রেও থাকবে। কোনো দল ফ্রি কিক পেলেই রেফারিকে স্প্রে ব্যবহার করতে হবে। ফ্রি কিকের সময়কার এ ঝামেলা এড়াতে এবার বিশ্বকাপে ব্যবহার করা হবে স্প্রে। ডয়েচে ভেলে কী থাকবে স্প্রেতে তাও জানিয়ে দিয়েছেন ব্লাটার। স্প্রে চাপলে শাদা তরল বেরিয়ে আসবে। রেফারি সেই তরল ছিটিয়ে খেলোয়াড়রা ঠিক কোথায় দাঁড়িয়ে ‘ফ্রি-কিক ওয়াল’ গড়বেন সেই জায়গাটা চিহ্নিত করে দেবেন। তারপর বল কোথায় বসিয়ে ফ্রি কিক নিতে হবে সেটাও স্থির করবেন সেই শাদা তরল ছিটিয়ে। নির্দিষ্ট জায়গায় বল বসিয়ে স্প্রে থেকে চারপাশে শাদা তরল ছিটিয়ে দেবেন রেফারি। বলের চারপাশের এবং ফ্রি কিক ওয়ালের দাগ এক মিনিটের মধ্যেই মিলিয়ে যাবে।

এমন স্প্রে পরীক্ষামূলকভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে অনেকদিন ধরে৷ এ বছর তুরস্কে অনুষ্ঠিত অনূর্ধ্ব-২০ এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপে সফল প্রয়োগের পর ক্লাব বিশ্বকাপেও তা ব্যবহার করা হচ্ছে। ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বায়ার্নের কোচ পেপ গুয়ার্দিওলা জানান, এ স্প্রে ব্যবহার করায় আগের মতো আর প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়রা ৫-৬ মিটারের মধ্যে দেয়াল গড়তে পারবেন না, ৯ মিটার দূরেই দাঁড়াতে হবে তাদের। বিশ্বকাপের পরও ফুটবলে এমন স্প্রের ব্যবহার দেখতে চান গুয়ার্দিওলা৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here