বিক্ষোভের মুখে পড়তে পারে বিশ্বকাপ

মাথাভাঙ্গা মনিটর: ব্রাজিলে আগামী বছরের ফুটবল বিশ্বকাপ বিক্ষোভের লক্ষ্য হতে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছে ফিফা। বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটির আশঙ্কা দেশটিতে দুর্নীতি ও সরকারি সেবার অপর্যাপ্ততার জন্য বিক্ষোভে দায়ী করা হতে পারে ফিফাকেই। গত মঙ্গলবার ফিফার মহাসচিব জেরোম ভালকে দক্ষিণ আফ্রিকায় এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন বিশ্বকাপের সময় ব্রাজিলে সব গণমাধ্যমের চোখ থাকবে বলে বিক্ষোভকারীরা সুযোগটি কাজে লাগাতে পারে। আর ব্রাজিলে বিশ্বকাপের জন্য অর্থ ব্যয় করা হলেও প্রয়োজনীয় অবকাঠামো উন্নয়নে তা পাওয়া যাচ্ছে না অভিযোগে দোষ চাপানো হতে পারে ফিফা ও বিশ্বকাপের ওপর।
                গত জুনে কনফেডারেশন্স কাপ চলার সময় সরকারের বিভিন্ন খাতে দুর্নীতির অভিযোগে এবং সরকারি সেবা ও প্রয়োজনীয় অবকাঠামো উন্নয়নে পর্যাপ্ত অর্থ বরাদ্দের দাবিতে বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে পড়ে লাতিন আমেরিকার এ দেশ। বিক্ষোভ চলাকালে গাড়ি চাপায় চার জন, ওভারপাস থেকে পড়ে একজন ও কাঁদুনে গ্যাসের প্রভাবে আরেকজন প্রাণ হারায়। বিশ্বকাপের জন্য বিভিন্ন প্রকল্পে ব্রাজিল সরকার প্রায় ১৪০ কোটি ডলার খরচ করছে।
                ফিফার জন্য এ আন্দোলন মাথা ব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ভালকে মনে করেন, ব্রাজিলের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে এ আন্দোলনে ফিফাকে লক্ষ্যবস্তু করাটা ঠিক হবে না। সম্প্রতি ফিফা ও ব্রাজিলের ফুটবল কনফেডারেশনের কর্তাব্যক্তিদের ‘দুর্নীতিবাজ চোর’ আখ্যা দিয়ে ফুটবল বিশ্বকাপ চলার সময় দুর্নীতির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করতে দেশবাসীকে আহ্বান জানান ব্রাজিলের সাবেক ফুটবল তারকা রোমারিও। ব্রাজিলে স্টেডিয়াম পরিদর্শনে যাওয়া ফিফার কর্মকর্তাদের সামনেও বিক্ষোভ করেছে প্রতিবাদকারীরা। দুয়ো ধ্বনি শুনতে হয়েছে ব্রাজিলের বিশ্বকাপজয়ী দলের দুই খেলোয়াড় রোনালদো ও বেবেতোকেও।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *