ফুটবলে ব্রোঞ্জের সান্ত্বনা

মাথাভাঙ্গা মনিটর: লক্ষ্য ছিল সোনার পদক। সেমিতে ভারতের কাছে হেরে লক্ষ্য পূরণের পথ থেকে ছিটকে গেছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ ফুটবল দল। তবে সোমবার গুয়াহাটিতে মালদ্বীপকে টাইব্রেকারে ৭-৬ গোলে হারিয়ে ব্রোঞ্জটা অন্তত নিশ্চিত করা গেছে। নির্ধারিত সময়ে খেলা অমীমাংসিত ছিলো ২-২ গোলে। এসএ গেমসের নিয়মানুযায়ী নির্ধারিত ৯০ মিনিটের পরপরই টাইব্রেকার-পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।
ম্যাচের ১০ মিনিটে এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। মালদ্বীপের রক্ষণভাগের এক খেলোয়াড়ের হ্যান্ডবলে পাওয়া পেনাল্টি থেকে গোলটি করেন নাবিব নেওয়াজ জীবন। তবে লিডটা বেশিক্ষণ ধরে রাখা যায়নি। ৩৮ মিনিটে দুর্দান্ত এক ফ্রি কিক থেকে সমতা ফেরান ইসমাঈল ঈসা। সমতা ফেরানোর আগে অবশ্য বেশ কয়েকটি সহজ গোলের সুযোগ নষ্ট করেন মালদ্বীপের ফরোয়ার্ডরা।
৫৫ মিনিটে নিশ্চিত একটি গোল হজমের হাত থেকে দলকে রক্ষা করেন বাংলাদেশের গোলরক্ষক রাসেল মাহমুদ। ৬৫ মিনিটে ইসমাঈল ঈসা ডি বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া এক দূরপাল্লার শটে মালদ্বীপকে এগিয়ে দেন ২-১ গোলে। ৬৯ মিনিটে সমতা ফেরায় বাংলাদেশ। মালদ্বীপ ডি বক্সের মধ্যে সোহেল রানার নেওয়া একটি শট পোস্টে লেগে গোলে প্রবেশ করে। খেলা শেষ হওয়ার ১০ মিনিট আগে মালদ্বীপের আহমেদ নেইজের শট ক্রসবারে লেগে ফিরে এলে বড় বাঁচা বেঁচে যায় বাংলাদেশ। নির্ধারিত সময়ে জোড়া গোলে মালদ্বীপের হিরো ইসমাঈল ঈসা টাইব্রেকারে লক্ষ্যভেদে ব্যর্থ হলে ব্রোঞ্জ নিশ্চিত হয়ে যায় বাংলাদেশের। দক্ষিণ এশীয় গেমসে এ নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো ফুটবলে ব্রোঞ্জ জয় করল বাংলাদেশ। এর আগে ১৯৯১ সালে কলম্বো গেমসে নেপালকে হারিয়ে ব্রোঞ্জ জিতেছিলো বাংলাদেশ জাতীয় দল।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *