পেরুকে হারিয়ে কোপার সেমিতে কলম্বিয়া

 

মাথাভাঙ্গা মনিটর: পেরুকে টাইব্রেকারে ৪-২ গোলে হারিয়ে কোপা আমেরিকার সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে জেমস রদ্রিগেজের দল কলম্বিয়া। টাইব্রেকার শুরুর আগে শেষ মুহূর্তে দুর্দান্ত এক সেভে কলম্বিয়াকে বাঁচান গোলরক্ষক দাভিদ অসপিনা। পেনাল্টি শুট আউটেও একটি শট ঠেকিয়ে দিলেন আর্সেনালের এ গোলরক্ষক। ইস্ট রাদারফোর্ডে বাংলাদেশ সময় সকালে শুরু হওয়া ম্যাচের নির্ধারিত ৯০ মিনিট গোলশূন্য থাকার পর সরাসরি খেলা গড়ায় টাইব্রেকারে। ম্যাচের ২২তম মিনিটে ভাগ্যের ফেরে গোল পাননি কলম্বিয়ার অধিনায়ক রদ্রিগেজ। প্রায় ২৫ গজ দূর থেকে রিয়াল মাদ্রিদের এ তারকা মিডফিল্ডারের জোড়ালো শট ডান পোস্টে লেগে ফিরে। ফিরতি বল জালে জড়াতে পারেননি কার্লোস বাক্কা।

ম্যাচের শেষ দিকে পেরুর ক্রিস্তিয়ান কুয়েভার কর্নার থেকে ক্রিস্তিয়ান রামোসের হেড লাফিয়ে উঠে আঙুলের ছোঁয়ায় ক্রসবারে উপর দিয়ে পাঠিয়েদেন অসপিনা। কোপা আমেরিকার এই বিশেষ আসরে অতিরিক্ত সময়ের খেলা রাখা হয়নি। টাইব্রেকারে প্রথম শটে ডান প্রান্ত দিয়ে গোল করেন রদ্রিগেজ। রাউল রুইদিয়াস সমতা ফেরান বাঁ কোনা দিয়ে জোড়ালো শটে। দ্বিতীয় শটে গোলরক্ষককে উল্টো দিকে পাঠিয়ে ঠাণ্ডা মাথায় নিচু শটে ডান দিক দিয়ে গোল করেন কুয়াদরাদো। লক্ষ্যভেদ করেন পেরুর তাপিয়াও। পরের শটে কলম্বিয়ার দাইরো মরেনো ঠিক মাঝ দিয়ে বল জালে পাঠান। গোলরক্ষক না নড়লেই ঠেকাতে পারতেন। তবে পেরুর মিগেল ত্রাউকোর মাঝ বরাবর শট ঠিকই ঠেকিয়ে দেন অসপিনা। সেবাস্তিয়ান পেরেস গোল করলে ৪-২ ব্যবধানে এগিয়ে যায় কলম্বিয়া। কুয়েভার গোল করতেই হতো পেরুকে টিকিয়ে রাখতে হলে। চাপ সামলাতে না পেরে বাইরে মেরে দেন তিনি। ফলে ২০০৪ সালের পর প্রথমবার কোপা আমেরিকার শেষ চারে উঠে যায় কলম্বিয়া। সেমিফাইনালে কলম্বিয়ার প্রতিপক্ষ মেক্সিকো ও চিলির মধ্যে বিজয়ী দল।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *