পাল্টে যাচ্ছে ক্রিকেটের অনেক নিয়ম!

মাথাভাঙ্গা মনিটর: ডিসিশন রিভিউ সিস্টেমে (ডিআরএস) নতুন নিয়ম যুক্ত করতে সুপারিশ করেছে আইসিসির ক্রিকেট কমিটি। আর সেটি হলো- আম্পায়ারের দেয়া লেগ বিফোর সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জ করে রিভিউ নিয়ে ব্যর্থ হলেও সেই রিভিউ হারাবে না কোনো দল! এমন সুপারিশই করেছে ভারতীয় কোচ অনিল কুম্বলের নেতৃত্বাধীন এই কমিটি। যদি আইসিসির নির্বাহীদের সভা এটি অনুমোদন দেয়, তাহলে নতুন নিয়ম কার্যকর হবে আগামী অক্টোবরে। বর্তমানে টেস্টে সাধারণত এক ইনিংসে ৮০ ওভারে দুটি রিভিউ দেয়া হয়ে থাকে। ওয়ানডেতে এক ইনিংসে একটি। যদি রিভিউ চেয়ে সফল হয়, তাহলে সেই রিভিউ হারায় না কোনো দল। কিন্তু সঠিক না হলেই তা কমে যেতো। মূলত এলবি সিদ্ধান্ত মাথায় রেখে এমনটি করার কথা ভেবেছে এই কমিটি। বলতে গেলে ডিআরএস সিস্টেমে বেনিফিট অব ডাউট পেয়ে থাকে অন ফিল্ড আম্পায়ারের মাঠের সিদ্ধান্ত। দু দিনের সভা শেষে সাবেক অধিনায়ক অনিল কুম্বলে, রাহুল দ্রাবিড়, মাহেলা জয়াবর্ধনে ও অস্ট্রেলিয়ার বর্তমান কোচ ড্যারেন লেম্যান, ইসিবি পরিচালক ও সাবেক ক্রিকেটার অ্যান্ড্র– স্ট্রাউস এবং আম্পায়ার রিচার্ড ক্যাটেলবরো এ সিদ্ধান্তে একমত হয়েছেন। তবে এটি যদি কার্যকর হয় তাহলে আরেকটি নতুন নিয়মের মধ্যে পড়তে হবে সব দলকে। আগে ৮০ ওভারেই নতুন করে রিভিউ যোগ হতো। নতুন নিয়ম কার্যকর হলে ৮০ ওভারে আর সেটি হবে না। এছাড়া আরও বেশ কয়েকটি সুপারিশ করেছে এই কমিটি। যার মধ্যে রয়েছে টি ২০ ডিআরএস পদ্ধতি চালু। সম্প্রতি ইংল্যান্ডের জো রুট সংক্ষিপ্ত এই ফরম্যাটে ডিআরএস না থাকায় খেদ প্রকাশ করেছিলেন। তাই এ সভা শেষে আশা করা যাচ্ছে, আগামী অক্টোবরেই টি ২০তে চালু হতে পারে ডিআরএস।
কনকাশন সাবস্টিটিউট ব্যবহারেও সুপারিশ করেছে এ কমিটি। কেউ অজ্ঞান হয়ে মাঠ ছাড়লে তার বদলি হিসেবে কাউকে রাখার কথা অনেক আগে থেকেই শোনা যাচ্ছিল। যার মূল উদ্যোক্তা ছিল অস্ট্রেলিয়া। তাই কমিটি আইসিসির দেশগুলোকে পরীক্ষামূলক ভিত্তিতে আগামী দুই বছর এটি ব্যবহারের সুপারিশ করেছে। রানআউটের ক্ষেত্রেও যুগোপযোগী সুপারিশ করেছে কুম্বলের প্যানেল। এতোদিন ব্যাট ক্রিজ অতিক্রম করার পরও উইকেট ভাঙার সময় ব্যাট উঠে গেলে সেটা রানআউট ধরা হতো। এই প্যানেল সেই নিয়ম নতুনভাবে সাজাতে বলেছে। ব্যাট ক্রিজে পৌঁছে যাওয়ার পরে উঠে গেলেও ব্যাটসম্যান বেঁচেই যাবেন। সেটিকে আর রানআউট ধরা হবে না। ক্রিকেটে অশোভন আচরণের জন্য লালকার্ড প্রদর্শনের ব্যবস্থা চালু করার কথাও বলেছে এ কমিটি। একইসঙ্গে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ব্যাপারেও একমত পোষণ করেছে অনিল কুম্বলের এ প্যানেল। আর অলিম্পিকে ক্রিকেটকে যুক্ত করার বিষয়টি তো থাকছেই।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *