দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলতে চান পিটারসেন

মাথাভাঙ্গা মনিটর: ইংল্যান্ডের হয়ে আর নয়, এবার নিজ দেশ দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার ইচ্ছা প্রকাশ করলেন ডান-হাতি ব্যাটসম্যান কেভিন পিটারসেন। এজন্য ২০১৯ সাল পর্যন্ত অপেক্ষা করবেন বলে জানান তিনি। পিটারসেন বলেন, আমি এবার দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে চাই। আগামী দু’বছর অপেক্ষা করবো। এরমধ্যে দেশের হয়ে খেলার আগ্রহ রয়েছে আমার।’ ইংল্যান্ডে ঘরোয়া আসর ন্যাটওয়েস্ট টি-২০ ব্লাস্টে এবারের মরসুমে প্রথম খেলতে নেমে ব্যাট হাতে চমক দেখিয়েছেন পিটারসেন। প্রায় ২৪ হাজার দর্শকের সামনে এসেক্সের বিপক্ষে সারের জয়ে প্রধান ভূমিকাই রাখেন তিনি।

তিন নম্বরে ব্যাট হাতে নেমে ১টি চার ও ৫টি ছক্কায় ৩৫ বলে ৫২ রান করেন ম্যাচ সেরা পিটারসেন। ফলে সারে ১০ রানে হারায় এসেক্সকে। নিজের ব্যাটিং সম্পর্কে পিটারসেন বলেন, ‘আমি ব্যাটিং করতে ভালোবাসি। দীর্ঘক্ষণ ব্যাটিং করতে পছন্দ করি এবং বড় ইনিংস খেলতেই মাঠে নামি। ব্যাটিংয়ের সময় কিছুটা ব্যথা পেয়েছি, তাই ফিল্ডিং করিনি।’

সারের হয়ে এবারের মরসুমে দুর্দান্ত শুরুর পর আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার নিয়ে আবারো স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছেন পিটারসেন। ২০০৪ সাল থেকে ২০১৪ পর্যন্ত ইংল্যান্ডের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট মাতিয়েছেন তিনি। ২০১৪ সালের অ্যাশেজে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হোয়াইটওয়াশ হয়েছিলো ইংল্যান্ড। আর সেটিই ছিলো ইংলিশদের হয়ে পিটারসেনের সর্বশেষ আন্তর্জাতিক সিরিজ। এরপর অধিনায়ক ও বোর্ডের সাথে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে দল থেকে বাদ পড়েন পিটারসেন। এখন অবধি জাতীয় দলে ফিরতে পারেননি তিনি। কিছুদিন আগে একটি সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, ‘ইংল্যান্ডের হয়ে খেলার স্বপ্ন এখন আর দেখি না। তবে বিভিন্ন দেশের ঘরোয়া আসরগুলোতে খেলে যাবো।’

কিন্তু হঠাৎই আবারো জাতীয় দলের হয়ে খেলার স্বপ্ন দেখছেন পিটারসেন। তবে ইংল্যান্ডের হয়ে নয়, এবার নিজ জন্মভূমি দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে খেলতে চান তিনি, ‘দক্ষিণ আফ্রিকায় আগামী দু’বছর অনেকগুলো ম্যাচ খেলবো আমি। ঘরোয়া আসরের ম্যাচগুলো খেলবো। এরমাঝে জাতীয় দলের হয়ে খেলার ইচ্ছাও রয়েছের। তাই ২০১৯ সাল পর্যন্ত অপেক্ষা করবো। কে-জানে দু’বছর কি হবে? যদি আমি ব্যাটিং উপভোগ করি, তবে আমি ভালো অবস্থায় পৌঁছুতেও পারি।’ ইংল্যান্ডের হয়ে ১০৪ টেস্টে ৮১৮১ রান, ১৩৬ ওয়ানডেতে ৪৪৪০ রান ও ৩৭টি টি২০ ম্যাচে ১১৭৬ রান করেছেন ৩৭ বছর বয়সী পিটারসেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *