জয়ের পথে বাংলাদেশ এ দল

স্টাফ রিপোর্টার: কক্সবাজারে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে জিম্বাবুয়ে ও বাংলাদেশের ‘এ’ দলের মধ্যকার চারদিনের ম্যাচে বেশ কিছু অদ্ভুতূড়ে কাণ্ড ঘটলো গত তিন দিনে। তবে স্বস্তির বিষয়, ক্ষণে ক্ষণে রঙ বদলানো এ ম্যাচে জয়ের পথে রয়েছে বাংলাদেশ ‘এ’ দল। জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় ১০৪ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে তৃতীয় দিন শেষে ‘এ’ দলের সংগ্রহ ১ উইকেটে ৪৩। জয়ের জন্য প্রয়োজন আর মাত্র ৬১ রান। হাতে আছে গোটা একটি দিন।

‘অদ্ভুতূড়ে কাণ্ড’ আর কিছুই নয়, ম্যাচের প্রথম দিন পড়ে গেলো জিম্বাবুয়ের সবগুলো উইকেট। দু দল মিলে তুললো ২৩৬ রান। দ্বিতীয় দিন রানও উঠলো না, উইকেটও তেমন পড়লো না। শম্বুক গতির ব্যাটিঙে বাংলাদেশ ‘এ’ দল গোটা দিনে তুললো ১৩২ রান। তৃতীয় দিন, অর্থাৎ গতকাল আবার ঠিক বিপরীত দশা পড়লো ১৮ উইকেট, উঠলো মোটে ২০০ রান! উইকেটের চরিত্র একেক দিন একেক রকম কেন, এর যথার্থ উত্তর পাওয়া কঠিন।

গত দিনের ৩ উইকেটে ১৬২ রানের সাথে গতকাল অবশিষ্ট ৭ উইকেটে ৪৯ রানে যোগ করেই অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ ‘এ’ দল। সংগ্রহ সাকুল্যে ২১১। জিম্বাবুয়ে ‘এ’ দলের ওয়েলিংটন মাসাকাদজা ৬ উইকেট নিয়ে একাই যেন ত্রাস বনে গেলেন বাংলাদেশ ‘এ’ দলের ব্যাটসম্যানদের জন্য।

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে জিম্বাবুয়ে ‘এ’ দলের অবস্থা আরও ভয়াবহ। প্রথম ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসে সাকলাইন সজীবের ভেলকিতে টালমাটাল সফরকারী দল। মাত্র ১০৮ রানে গুটিয়ে গেছে জিম্বাবুয়ে ‘এ’ দল। সাকলাইনের দখলে ৬ উইকেট, বাকি ৪টা জুবায়েরের হোসেনের ঝুলিতে। দু ইনিংস মিলে সাকলাইনের উইকেট সংখ্যা ১৫। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে এটিই বাংলাদেশি বোলারদের এক ম্যাচে সেরা বোলিং-সাফল্য।

বাংলাদেশ ‘এ’ দলের লক্ষ্য দাঁড়িয়েছে ১০৪। এরই মধ্যে ১ উইকেটে ৪৩ তুলে ফেলেছে স্বাগতিকেরা। উইকেট যতই খ্যাপাটে হোক না কেন, শেষ দিনে বাকি ৯ উইকেটে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যাওয়াটা খুব একটা কঠিন হওয়ার কথা নয়। এ সময় উইকেট নতুন করে খেপে না উঠলেই হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *