জয়াবর্ধনের দ্বি-শতকে শ্রীলঙ্কার রানের পাহাড়

0
33

স্টাফ রিপোর্টার: মাহেলা জয়াবর্ধনের অপরাজিত দ্বিশতকের সুবাদে মিরপুরে বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে বিশাল সংগ্রহ গড়েছে শ্রীলঙ্কা। সাবেক অধিনায়কের সাথে নবাগত কিথুরুয়ান ভিথানাগেও শতকের আনন্দে ভেসে যাওয়ায় ৬ উইকেটে ৭৩০ রান তুলে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেছে অতিথিরা। টেস্ট ক্রিকেটে এটাই বাংলাদেশের বিপক্ষে সর্বোচ্চ সংগ্রহ। আগের সর্বোচ্চ রান ছিল ২০১২ সালে খুলনায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৬৪৮/৯। বাংলাদেশের বিপক্ষে শ্রীলঙ্কার আগের সর্বোচ্চ সংগ্রহ ছিলো ২০০৭ সালে কলম্বো টেস্টে ৫৭৭/৬। ৪৯৮ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামা বাংলাদেশকে অস্বস্তিতে ফেলে দিয়েছেন তামিম ইকবাল। বাঁহাতি স্পিনার রঙ্গনা হেরাথকে অযথা তুলে মারতে গিয়ে ব্যক্তিগত ১১ রানে পয়েন্ট অঞ্চলে দিলরুয়ান পেরেরার দুর্দান্ত ক্যাচে পরিণত হয়েছেন তিনি। গত বুধবার তৃতীয় দিন শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৩৫/১। ইনিংস হার এড়াতে আরো ৪৬৩ রান প্রয়োজন। মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ৫ উইকেটে ৩৭৫ রান নিয়ে ব্যাট করতে নামা শ্রীলঙ্কাকে অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসের সাথে জয়াবর্ধনের ১৭৯ রানের জুটি বড় সংগ্রহের দিকে নিয়ে যায়।
আগের দিন দুটি ক্যাচ ফেলে দেয়া মুশফিকুর রহিম গত বুধবার ‘জীবন’ দিয়েছেন ম্যাথিউসকেও। অনিয়মিত স্পিনার মার্শাল আইয়ুবের বলে ম্যাথিউসের সহজ ক্যাচ গ্লাভসবন্দী করতে পারেননি বাংলাদেশের অধিনায়ক। শেষ পর্যন্ত অফস্পিনার সোহাগ গাজীর বলে শর্ট মিড-অনে মার্শালের হাতে ধরা পড়ে ফিরতে হয়েছে ৮৬ রান করা ম্যাথিউসকে। গত বুধবার বাংলাদেশের বোলারদের এই একটিই সাফল্য। মিরপুর টেস্টের তৃতীয় দিন এরপর স্বাগতিক দলকে শুধু হতাশই করেছে। সপ্তম উইকেটে ভিথানাগের সাথে অবিচ্ছিন্ন ১৭৬ রানের আরেকটি চমৎকার জুটি গড়ে টেস্টে শ্রীলঙ্কাকে চতুর্থ সর্বোচ্চ রান এনে দেন জয়াবর্ধনে। ৩৩তম শতক এবং সপ্তম দ্বিশতকের দেখা পাওয়া জয়াবর্ধনে অপরাজিত থাকেন ২০৩ রানে। ২৭১ বলের দুর্দান্ত ইনিংসটি সাজানো ১৬টি চার ও ৪টি ছক্কায়। এ ইনিংস খেলার পথে ওয়েস্ট ইন্ডিজের শিবনারায়ণ চন্দরপল (১১ হাজার ২১৯) ও অস্ট্রেলিয়ার অ্যালান বোর্ডারকে (১১ হাজার ১৭৪) পেছনে ফেলে টেস্টে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকায় ষষ্ঠ স্থানে উঠে এসেছেন জয়াবর্ধনে। টেস্টে শ্রীলঙ্কার সবচেয়ে অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যানের এখন ১১ হাজার ২৩৬ রান।
তৃতীয় টেস্টে প্রথম শতকের দেখা পাওয়া ভিথানাগে অপরাজিত ছিলেন ১০৩ রানে। ১০৪ বলের আক্রমণাত্মক ইনিংসটিতে ছিলো ১২টি চার ও ২টি ছক্কা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here