গার্দিওলার অবাধ্য হয়েছিলেন মেসি!

মাথাভাঙ্গা মনিটর: বার্সেলোনায় কোচ পেপ গার্দিওলার সাথে লিওনেল মেসির সম্পর্ক নিয়ে তিক্ত অভিজ্ঞতার কথা কখনোই শোনা যায়নি। কেউ শোনার প্রত্যাশাও হয়তো করেননি। অথচ অপ্রত্যাশিতভাবে একটি ঘটনা ফাঁস করলেন মেজর সকার লিগের ক্লাব নিউ রেড বুলসের সাবেক কোচ হ্যান্স ব্যাকে। সুইডেনের এ সাবেক ফুটবলার জানালেন, চার বছর আগে পুরো দলের সামনে গার্দিওলার অবাধ্য হয়েছিলেন আর্জেন্টাইন তারকা। বেশ লজ্জায় নাকি পড়েছিলেন তৎকালীন কোচ গার্দিওলাও।

স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনার সাথে ব্যাকের সম্পর্কের যোজন যোজন দূরত্ব। কখনোই বার্সার কোনো দায়িত্বে ছিলেন না। সংশ্লিষ্টতা একেবারেই নেই। কিন্তু শিষ্যত্ব গ্রহণ করে স্প্যানিশ চ্যাম্পিয়নদের সাথে ব্যাকের সেতুবন্ধন কিছুটা হলেও গড়ে দিয়েছিলেন বার্সার সাবেক তারকা থিয়েরি অঁরি ও রাফায়েল মারকুয়েজ। এ দু খেলোয়াড় ন্যু ক্যাম্পে থাকাকালেই ওই ঘটনা ঘটেছিলো জানালেন সাবেক এ সুইডিশ কোচ।

দেশের এক সংবাদমাধ্যমকে ব্যাকে জানান, ২০০৯ সালে একটি ম্যাচের আগে ইচ্ছে করে গার্দিওলার অবাধ্য হয়েছিলেন মেসি। তবে সূত্রের নাম প্রকাশ করেননি সাবেক এ কোচ। ব্যাকে বলেন, ম্যাচের তিন ঘণ্টা আগে এ ঘটনা ঘটেছিলো। খেলোয়াড়রা বসে বসে খাচ্ছিলো। কিন্তু মেসি কোকের ক্যান চাইল। তিন ঘণ্টা আগে কোনো খেলোয়াড়কে কোক দিতে নারাজ ছিলেন গার্দিওলা। তিনি বললেন, ম্যাচের তিন ঘণ্টা আগে কোনো খেলোয়াড়ের কোক খাওয়া উচিত নয়। মেসি তাতে কানই দিলো না। উঠে চলে গেলো, আর ফিরে এলো কোকের ক্যান হাতে নিয়ে। শুধু তাই নয়, সবার সামনে গার্দিওলাকে দেখিয়ে কোক খেল সে। মেসির মতো খেলোয়াড় অবাধ্য হওয়া বেশ বিস্ময় জাগিয়েছে ব্যাকেকে, এভাবে মেসির মতো একজন খেলোয়াড় কোচের বিরুদ্ধে গেলে কেমন লাগে একবার ভাবুন তো?

Leave a comment

Your email address will not be published.