ক্রিকেটকে ‘বিদায়’ টেন্ডুলকারের

অনেক জল্পনা-কল্পনা শেষে অবশেষে ঘোষণাটা দিয়েই দিলেন শচীন টেন্ডুলকার। ক্যারিয়ারের ২০০তম টেস্ট ম্যাচটি খেলেই বিদায় জানাবেন তাঁর ২৪ বছরের দীর্ঘ ক্রিকেট জীবনকে। আগামী মাসে ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষেই শেষ হতে যাচ্ছে ক্রিকেটের সবচেয়ে বর্ণাঢ্য এক অধ্যায়ের। ওয়ানডে ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছিলেন আগেই। কদিন আগে ঘরোয়া টি-টোয়েন্টিকেও বিদায় জানালেন। এবার টেস্টও ছেড়ে দিচ্ছেন। ক্রিকেট ইতিহাসের সফলতম ব্যাটসম্যানটিকে এরপর আর খেলতে দেখা যাবে না! এরপর আর কখনোই ক্রিকেট মাঠের ২২ গজি ক্ষেত্রে ব্যাট হাতে বোলারদের ছত্রখান করবেন না লিটল মাস্টার!
এক নভেম্বরে যাত্রা শুরু হয়েছিল। ১৯৮৯ সালের ১৫ নভেম্বর, করাচিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে। শেষটাও হতে যাচ্ছে আরেক নভেম্বরে। ঠিক যেন একটা বৃত্ত পূরণ!
অবসরের ঘোষণাটি বেশ আবেগঘন ভাষাতেই দিয়েছেন টেন্ডুলকার, ‘সারা জীবনই ভারতের পক্ষে খেলার স্বপ্নটা বুকে লালন করেছি। ২৪ বছর ধরে প্রতিটি দিন এই স্বপ্নকে সত্যে পরিণত করেছি। ক্রিকেট ছাড়া আমার জীবন ভাবতেই পারি না। ১১ বছর বয়স থেকেই এই ক্রিকেটই আমার সবকিছু। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আমার দেশকে প্রতিনিধিত্ব করে গর্বিত ও সম্মানিত। ঘরের মাঠে ক্যারিয়ারের ২০০তম টেস্ট ম্যাচটি খেলেই আমি ক্রিকেটকে “বিদায়” বলতে চাই।’
টেন্ডুলকার তাঁর বিদায়বার্তায় ধন্যবাদ জানিয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে। স্মরণ করেছেন তাঁর সব ভক্তকে, যারা বছরের পর বছর তাঁকে শুভকামনা জানিয়েছেন, তাঁর জন্য প্রার্থনা করেছেন। পরিবারের প্রতি তিনি কৃতজ্ঞ, তাঁর ক্রিকেট জীবনের চলার পথকে মসৃণ করে তোলার জন্য।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *