কোথায় পেলে আর কোথায় তার ছেলে

 

মাথাভাঙ্গা মনিটর: নিয়তির কি নির্মম পরিহাস! কোথায় পেলে আর কোথায় তারছেলে। ‘বাপ কা বেটা’কথাটা এ ক্ষেত্রে কোনোভাবেই মেলে না। ১৯৯০’র দশকেএডিনহো তার পিতার সাবেক ক্লাব সান্তোসের গোলরক্ষক হিসেবে খেলেছেন। অবশ্যসেটা নেহাৎ ঘরোয়া পর্যায়েই। তবে তিনিও মাঝেমধ্যে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সংবাদহয়েছেন এবং হচ্ছেন। খ্যাতিটা অবশ্য সু নয় কু। পিতা যেখানে বিশ্বজুড়েঅবিসংবাদিত এক ব্যক্তিত্ব, সেখানে তার ছেলের পরিচিতি মাদক পাচারকারীহিসেবে। খবরটা নতুন নয়। পেলের ছেলে মাদক পাচারের দায়ে আলোচনায় আসেন সেই ২০০৫সালে। সে সময় কারাদণ্ড ভোগ করেন তিনি। সান্তোসের কুখ্যাত মাদক পাচারকারীরসাথে তার সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ পাওয়া যায়। অনেকদিন তিনি আর এ বিষয়েআলোচনায় ছিলেন না। ৪৩ বছর বয়সী এডিনহো সাম্প্রতিক সময়ে সান্তোসের গোলরক্ষকপ্রশিক্ষক হিসেবে কাজ করছিলেন। কিন্তু মামলাতো চলছিলো। আর তারই রায় বেরোয়গত শনিবার। অবৈধভাবে অর্থ ও মাদক পাচারের দায়ে কিংবদন্তির ফুটবলার পেলের ছেলের৩৩ বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেয়া হয়েছে। সাওপাওলোর সমুদ্র তীরের শহর প্রাইয়াগ্রান্দের একটি আদালত এই রায় দিয়েছে। সাবেক ফুটবলার এডিনহো অবশ্য নিজেরমাদকাসক্তির কথা স্বীকার করেছেন তবে পাচারের বিষয় অস্বীকার করেছেন।ব্রাজিলের সংবাদকর্মীরা এরডিনহোর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করে ব্যর্থহয়েছেন। তবে তিনি এই রায়ের বিরুদ্ধে আবেদন করবেন বলে জানা গেছে।

এডিনহোরআসল নাম হচ্ছে এডসন চলবি দো নাসিমেন্তা। পেলের নাম এডসন আরান্তেস দোনাসিমেন্তো। ১৯৫৮,১৯৬২ ও ১৯৭০ এর বিশ্বকাপজীয় পেটলে ১৯৭৪ সালে সান্তোসথেকেই অবসরে যান।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *