কলম্বো টেস্টে রানের পাহাড় গড়েছে ভারত

মাথাভাঙ্গা মনিটর: চেতেশ্বর পূজারা ও আজিঙ্কা রাহানের জোড়া সেঞ্চুরির পর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে কলম্বো টেস্টে তিন ব্যাটসম্যানের হাফ- সেঞ্চুরিতে রানের পাহাড় গড়েছে সফরকারী ভারত। রবীচন্দ্রন অশ্বিন-উইকেটরক্ষক ঋদ্ধিমান সাহা ও রবীন্দ্র জাদেজার অপরাজিত হাফ- সেঞ্চুরিতে ৯ উইকেটে ৬২২ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে ভারত। যা টেস্টে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ভারতের পঞ্চম সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ। পক্ষান্তরে শ্রীলঙ্কার মাটিতে সফরকারী দলের এটি তৃতীয় সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ। এর আগের দুটি সংগ্রহ ছিল ভারত ও বাংলাদেশের। ২০১০ সালে এই ভেন্যুতেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এক ইনিংসে ভারত ৭০৭ ও ২০১২-১৩ মৌসুমে গল টেস্টে ৬৩৮ রান করেছিলো বাংলাদেশ।

দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান পূজারার ১২৮ ও রাহানের ১০৩ রানের সুবাদে টেস্টের প্রথম দিন শেষে ৩ উইকেটে ৩৪৪ রান করে টিম ইন্ডিয়া। দ্বিতীয় দিন নিজেদের ইনিংসটাকে খুব বেশি বড় করতে পারেননি তারা। পূজারা ১৩৩ ও রাহানে ১৩২ রানে আউট হন। চতুর্থ উইকেটে এ জুটি ২১৭ রান যোগ করেন। দলীয় ৩৫০ রানে পূজারা ও ৪১৩ রানে রাহানে ফিরে যাবার পর ভারতের হাল ধরেন অশ্বিন-সাহা ও জাদেজা। ছয় নম্বরে ব্যাট হাতে নেমে ক্যারিয়ারের ১১তম হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ পান অশ্বিন। সেই সাথে ক্যারিয়ারে ২ হাজার রানও পূর্ণ করেন তিনি। ফলে দ্রুত ২ হাজার রানের পাশাপাশি ২৭৯ উইকেট নিয়ে নতুন বিশ্বরেকর্ড গড়েন অশ্বিন। বিশ্বরেকর্ডের তালিকায় নিজের নাম তুলে ব্যক্তিগত ৫৪ রানে থামেন তিনি। তার ৯২ বলের ইনিংসে ৫টি চার ও ১টি ছক্কা ছিলো। এরপর উইকেটে গিয়ে দ্রুত রান তোলায় মনোযোগী হন আগের টেস্টে অভিষেক হওয়া হার্ডিক পান্ডে। কিন্তু ৩টি চারে ২০ বলে ২০ রানের বেশি করতে পারেননি পান্ডে।

পান্ডের বিদায়ের পর ভারতের রানের চাকা ঘুড়তে থাকে সাহা ও জাদেজার ব্যাটে চড়ে। দু’জনের ৭২ রানের জুটিতে ৬শ’ রানের কাছাকাছি পৌঁছে যায় ভারত। কিন্তু ক্যারিয়ারের পঞ্চম হাফ-সেঞ্চুরি তুলে ৬৭ রানে সাহা আউট হলে, ভারতকে ৬শ’ রানের পাহাড়ে তুলে দেন জাদেজা। ক্যারিয়ারের অষ্টম হাফ-সেঞ্চুরি তুলে ৭০ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। এরপরই ইনিংস ঘোষণা করেন ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ৪টি চার ও ১টি ছক্কায় ১৩৪ বলে নিজের ইনিংসটি সাজান সাহা। আর ৪টি চার ও ৩টি ছক্কায় ৮৫ বল মোকাবেলা করেন জাদেজা। এছাড়া দশ নম্বরে মোহাম্মদ সামি ১টি চার ও ২টি ছক্কায় ৮ বলে ১৯ রান করেন। ৮ রানে অপরাজিত ছিলেন শেষ ব্যাটসম্যান উমেশ যাদব। শ্রীলঙ্কার রঙ্গনা হেরাথ ১৫৪ রানে ৪টি ও অভিষেক ম্যাচ খেলতে নামা মালিন্দা পুষ্পকুমারা ১৫৬ রানে ২ উইকেট নেন। ভারতের ৬২২ রানের জবাবে দিন শেষে ২০ ওভারে ২ উইকেটে ৫০ রান তুলেছে শ্রীলঙ্কা। স্বাগতিকদের দুটি উইকেটই নিয়েছেন অশ্বিন। দ্বিতীয় দিন শেষে ৮ উইকেট হাতে নিয়ে ৫৭২ রানে পিছিয়ে রয়েছে লঙ্কানরা। ফলো-অন এড়াতে এখনো ৩৭৩ রান লাগবে স্বাগতিকদের। ইনিংসের দ্বিতীয় ও নিজের প্রথম ওভারের শেষ বলে স্বাগতিক ওপেনার উপুল থারাঙ্গাকে শূন্য হাতে ফিরিয়েছেন ভারতের অফ-স্পিনার অশ্বিন।

এরপর শুরুর ধাক্কা সামলে উঠেন আরেক ওপেনার দিমুথ করুনারত্নে ও কুশল মেন্ডিস। কিন্তু এই জুটিকে ৩৩ রানের বেশি যোগ করতে দেননি অশ্বিন। করুনারত্নেকে ২৫ রানেই থামিয়ে দেন অশ্বিন। দিনের শেষভাগটা অপরাজিত থেকেই শেষ করেছেন মেন্ডিস ও অধিনায়ক দিনেশ চান্ডিমাল। মেন্ডিস ১৬ ও চান্ডিমাল ৮ রানে অপরাজিত আছেন। ভারতের অশ্বিন ৩৮ রানে ২ উইকেট নেন।

Leave a comment

Your email address will not be published.