এশিয়া কাপে অবশেষে বাংলাদেশের গোল

স্টাফ রিপোর্টার: এশিয়া কাপের প্রথম দুই ম্যাচে বাংলাদেশের জালে ঢুকেছে ১৪ গোল। ভারত আর পাকিস্তান দুই দলই ৭টি করে। এর বিপরীতে বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের স্টিক থেকে একটি গোলও আসেনি। এই গোল করতে না পারার হাহাকারটা গতকাল অন্তত ঘোচানো গেছে। জাপানের বিপক্ষে অবশেষে গোল করেছে বাংলাদেশ। যদিও ম্যাচটি হারতে হয়েছে ৩-১ গোলে; তারপরেও গোল তো এসেছে। এই বা কম কী! গোল পেলেও জাপানের বিপক্ষে ম্যাচটি বড় হাহাকার দিয়েই শেষ হয়েছে। ম্যাচটি ড্র করতে পারত বাংলাদেশ। ১-১ গোলেই এগিয়ে চলা অবস্থায় শেষ দুই মিনিটের ঝড়েই এই হার জিমি-চয়নদের। বিশ্ব হকি র‌্যাঙ্কিংয়ে জাপানের অবস্থান ১৪, আর বাংলাদেশের ৩৪। ম্যাচে তাদের শক্তিটা ঠিকই দেখিয়ে দিয়েছে জাপান। গোলরক্ষক অসীম গোপ ‘চীনের প্রাচীর’ হয়ে দাঁড়িয়ে বেশ কিছু গোল নস্যাৎ করেছেন। ঠেকিয়েছেন পেনাল্টি স্ট্রোকও। বেশ কয়েকটি পেনাল্টি কর্নার পেয়েও জাপান গোল করতে ব্যর্থ হয়। প্রথম কোয়ার্টার ছিলো গোলশূন্য। জাপান প্রচুর আক্রমণ করলেও গোলমুখ খুলতে পারেনি। ভাগ্যও যেন সহায় ছিলো না তাদের। এছাড়া ভাগ্যও সহায় ছিলো না জাপানের। ২০ মিনিটে কোজি ইয়ামাসাকির কানেক্ট সাইড বোর্ডে লেগে ফিরে আসে। তবে দুই মিনিট পরেই এগিয়ে যায় সূর্যোদয়ের দেশটি। কেনজি কিতাজাতো ডান প্রান্ত দিয়ে একক প্রচেষ্টায় ঢুকে পুশে গোল করেন (১-০)। ছয় মিনিট পরেই সমতা ফিরিয়ে আনে বাংলাদেশ। পেনাল্টি কর্নার থেকে ড্রাগ ফ্লিকে গোলটি করেন মামুনুর রহমান চয়ন। ম্যাচটি যখন ড্রয়ের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে ঠিক, তখনই দুই মিনিটের ব্যবধানে জোড়া গোল করে বাংলাদেশকে হতাশার সাগরে ডুবিয়ে দেন কেন্টা তানাকা। ভারতের কাছে ৫-১ গোলে হারলেও পাকিস্তানের সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করে জাপান দেখিয়ে দিয়েছিলো তাদের শক্তিও কম নয়। কিন্তু ব্যর্থতার চোরাবালিতে খাবিখাওয়া বাংলাদেশের আর কিছু করে দেখানো হলো না। প্রস্তুতি ম্যাচে জাপানকে হারিয়ে আশা জাগিয়েও হকি দল আবারও চরমভাবে ব্যর্থ। গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিয়ে রাসেল মাহমুদ জিমির দল এখন স্থান নির্ধারণী লড়াইয়ের মাঠে নামবে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *