এল ক্লাসিকোর প্রথম পর্বে ন্যু ক্যাম্পে রিয়াল

মাথাভাঙ্গা মনিটর: লা লিগা বহুল আকাঙ্ক্ষিত এল ক্লাসিকোয় জয়খরা কাটাতে আজ শনিবার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের মুখোমুখি হতে যাচ্ছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনা। কাতালান জায়ান্টরা লিগ ফিকশ্চারে রিয়ালের বিপক্ষে সর্বশেষ জয়টি পেয়েছে ২০১১ সালের ডিসেম্বরে। সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে পিছিয়ে থেকেও সেবার ৩-১ গোলে জিতেছিলো তারা।

এরপর কোপা ডেল রে ও সুপার কোপায় জিতলেও লিগে সর্বশেষ তিন ম্যাচে মাত্র এক পয়েন্ট অর্জন করতে পেরেছে বার্সা। সেই অস্বস্তি কাটিয়ে উঠে নিজেদের সেরা প্রমাণ করতে এবার জিততে চায় তারা। এবারের লিগ মরসুমে এখন পর্যন্ত অজেয় একমাত্র কাতালানরা। রেকর্ড আটটি জয় ও একটি ড্র তাদের। ওসাসুনার মাঠে গত সপ্তায় গোলশূন্য ড্র করে এবার ন্যু ক্যাম্পে রিয়ালকে স্বাগত জানাবে মেসি-পুয়োলরা। ঘরের মাঠে লিগে গত ১৯ ম্যাচ জয়ের আত্মবিশ্বাস বেশ এগিয়েই রাখবে চ্যাম্পিয়নদের।

রিয়ালও দারুণ পারফরমেন্সে রয়েছে। গত ম্যাচে বার্সার ড্র ও অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের হার শীর্ষস্থানের সাথে তাদের ব্যবধান কমিয়ে দিয়েছে। শীর্ষে থাকা বার্সার চেয়ে তিন পয়েন্ট কম তাদের। আর চলতি মরসুমে মাত্র একটিই হার দশবারের ইউরোপ সেরাদের, গত ম্যাচে মাদ্রিদ ডার্বিতে অ্যাতলেতিকোর কাছে।

এল ক্লাসিকোর প্রথম স্বাদ পেতে যাচ্ছে দলের বেশ কয়েকজন। নেইমার, বেল, ইস্কো ও আসিয়ের ইয়ারামেন্দি তো বটেই, দু দলের নতুন কোচ জেরার্দো মার্তিনো ও কার্লো আনচেলত্তিরও নতুন অভিজ্ঞতা হতে যাচ্ছে। বিশ্বজুড়ে পরিচিত দু সেরা খেলোয়াড় লিওনেল মেসি ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ছাড়াও এ প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নজর থাকবে নতুন দু সেনসেশন নেইমার ও বেলের দিকে। পিঠের চোট কাটিয়ে শনিবার মালাগার বিপক্ষে বদলি খেলেছিলেন বেল। রিয়াল কোচ ক্লাসিকোর স্বাদ বিশ্বের দামি খেলোয়াড়কে শুরু থেকেই দেয়ার ইঙ্গিত দিলেন। বার্সার ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমার তো উন্মুখ হয়ে আছেন সামর্থ্যরে প্রমাণ দিতে।

তবে দুদলের মূল ভরসা রোনালদো ও মেসির উপরই। জুভেন্টাসের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ২-১ গোলে জয়ের ম্যাচে জোড়া গোল করে আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে রিয়ালের পর্তুগিজ উইঙ্গার। সব ধরনের প্রতিযোগিতায় চলতি মরসুমে ১২ ম্যাচে ১৫ গোল করেছেন তিনি। মেসিও কম যান না। চোটের কারণে কয়েকটি ম্যাচ খেলতে না পারলেও নয় ম্যাচে গোল পেয়েছেন ১২টি।

পরিসংখ্যানে ২২৪ বার মুখোমুখি লড়াইয়ে ৯০ বার জিতেছে রিয়াল, আর ৮৬টি বার্সা। জয়ের সংখ্যা আরও দীর্ঘ করতেই ন্যু ক্যাম্পে দলকে নিয়ে হাজির হবেন আনচেলত্তি। জয় পেলে বার্সার সমান পয়েন্ট দখল করে চাপটাও কমিয়ে রাখতে চায় তার রিয়াল। অন্যদিকে পয়েন্ট ব্যবধানটা বাড়িয়ে রেখে শিরোপা অক্ষুণ্নের মিশনে এগিয়ে থাকতে চায় মার্তিনো শিষ্যরা। বাংলাদেশ সময় রাত ১০টায় শুরু হবে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ এই লড়াই।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *