ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বাঁচা-মরার লড়াইয়ে মাঠে নামছে নিউজিল্যান্ড

 

মাথাভাঙ্গা মনিটর: আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির লড়াইয়ে টিকে থাকতে জয়ের লক্ষ্য নিয়ে আজ স্বাগতিক ইংল্যান্ডের বিপক্ষে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচ খেলতে নামবে নিউজিল্যান্ড। পক্ষান্তরে প্রথম ম্যাচ জিতে বেশ নির্ভার স্বাগতিক ইংল্যান্ড। তাই জয়ের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখে সেমিফাইনালে এক পা দিতে মুখিয়ে আছে গতবারের রানারআপরা। সুতরাং টুর্নামেন্টে টিকে থাকা এবং সেমিফাইনালে এক পা দিয়ে রাখার লক্ষ্য আজ কার্ডিফে মুখোমুখি হচ্ছে ইল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড। বাংলাদেশ সময় দুপুর সাড়ে তিনটায় শুরু হবে ম্যাচটি।

‘এ’ গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশকে ৮ উইকেটে হারিয়ে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির এবারের আসরে শুভ সূচনা করে স্বাগতিক ইংল্যান্ড। বাংলাদেশের ছুঁড়ে দেয়া ৩০৬ রানের টার্গেট অনায়াসে স্পর্শ করে ফেলে স্বাগতিকরা। টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই বেশ আত্মবিশ্বাসী ইয়োইন মরগানের দল। তাই প্রথম ম্যাচ জিতে আত্মবিশ্বাসটা আরো বাড়িয়ে নিয়েই গ্রুপ পর্বে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে নামবে তারা।

এ ম্যাচও জয়ের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখে দ্রুতই সেমিফাইনালের পথে এক ধাপ দিয়ে রাখতে চাইছেন ইংল্যান্ডের ওপেনার অ্যালেক্স হেলস, ‘আমাদের শুরুটা দারুণ হয়েছে। এর চেয়ে ভালো শুরু আর কি হতে পারে। প্রথম ম্যাচে আমরা ভালো খেলেছি। এই ধারাবাহিকতাটা অব্যাহত রাখতে চাই। বড় আসরে ধারাবাহিক হওয়াটা জরুরি। এতে দলও ভালো খেলতে উজ্জীবিত থাকে। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে জয় পেয়ে আমাদের সেমি অনেকাংশেই নিশ্চিত হয়ে যাবে। আর সেই কাজটি এ ম্যাচে নিশ্চিত করতে চাইছি।’  ইংল্যান্ডের মতোই দুর্দান্তভাবে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে যাত্রা শুরু করতে পারতো নিউজিল্যান্ড। কিন্তু দুভার্গ্য তাদের। বৃষ্টি সেটি হতে দেয়নি। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৪৬ ওভারের ম্যাচে ২৯১ রানে অলআউট হয় নিউজিল্যান্ড। জবাবে ৩৩ ওভারে ম্যাচ জয়ের জন্য ২৩৫ রানের টার্গেট পায় অসিরা। জবাবে ৯ ওভারে ৫৩ রান তুলতেই ৩ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ হারের পথ দেখতে থাকে অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু পরবর্তীতে বৃষ্টি ম্যাচটিকে পরিত্যক্ত করে দেয়। ফলে বৃষ্টির কারণে অস্ট্রেলিয়ার সাথে পয়েন্ট ভাগাভাগি করে নিউজিল্যান্ড। যা এখন দলটির সামনে বাঁচা-মরার সমান হয়ে দাঁড়িয়েছে। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির লড়াইয়ে টিকে থাকতে হলে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জয় পেতেই হবে কিউইদের।

সেই কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যের কথা জানিয়ে নিউজিল্যান্ড মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যান নিল ব্রুম বলেন, ‘আমাদের সামনে কঠিন চ্যালেঞ্জ। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আমাদের জিততেই হবে। নয়তো পরবর্তীতে আমাদের জন্য খারাপ কিছু অপেক্ষা করছে। তাই এই ম্যাচেই আমাদের দায়িত্বটা ভালোভাবে সম্পন্ন করতে হবে। জয় ছাড়া অন্য কোন পথই আমাদের সামনে খোলা নেই। তাই এ ম্যাচে জিততেই মাঠে নামবো আমরা।’ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত ৮৩ বার মুখোমুখি হয় ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড। এরমধ্যে কিউইরা সবচেয়ে বেশি ৪১ বার জয় পায়। পক্ষান্তরে ইংল্যান্ডের জয় ৩৬টি ম্যাচে। ২টি ম্যাচ টাই ও ৪টি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়।

তবে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের জয়ের পাল্লা সমান-সমান। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে দু’বার মুখোমুখি হয়েছে দু’দল। ২০০৯ সালের আসরে প্রথমবারের দেখায় ইংল্যান্ডকে ৪ উইকেটে হারায় কিউইরা। আর গেলো আসরে নিজেদের মাঠে বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে কিউইদের বিপক্ষে ১০ রানে জয় পায় ইংল্যান্ড।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *