ইংল্যান্ডের বাঁচা-মরার ম্যাচে ফেভারিট বাংলাদেশ

মাথাভাঙ্গা মনিটর: হারলেই বাদ-বিশ্ব আসরে এমন খেলার অভিজ্ঞতা কম নয় বাংলাদেশের। বরাবরই বড় দলগুলোর বিপক্ষে এ ধরনের ম্যাচ খেলছিলো তারা। এবার হতে যাচ্ছে উল্টো অভিজ্ঞতা। ইংল্যান্ডের বাঁচা-মরার ম্যাচে প্রতিপক্ষ মাশরাফি বিন মুর্তজারা। আজ সোমবার অ্যাডিলেইড ওভালে বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে নয়টায় মুখোমুখি হবে কোয়ার্টার-ফাইনালের লড়াইয়ে থাকা দু দল।

বাংলাদেশের জন্য সমীকরণ খুব সহজ। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জিতলেই প্রথমবারের মতো কোয়ার্টার-ফাইনালে পৌঁছে যাবে তারা। শেষ আটে যেতে নিজেদের দু ম্যাচে জিতেও বাংলাদেশের দু ম্যাচেই হারের অপেক্ষায় থাকতে হবে ইংল্যান্ডের। তাই ভীষণ চাপে আছে বিশ্বকাপে চার ম্যাচের মাত্র একটিতে জেতা ইংল্যান্ড। আফগানিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশ যতটা চাপে ছিলো, ওয়েন মর্গ্যানের দল তার চেয়ে বেশি চাপেই আছে। বাংলাদেশের শুধু একটি ম্যাচে হারের ভয় ছিলো, সেখানে ইংল্যান্ড আছে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নেয়ার শঙ্কায়। ইংল্যান্ডের চাপ সম্পর্কে মাশরাফি বলেন, আফগানিস্তান ম্যাচে দল, এমনকি পুরো দেশ চাপে ছিলো। সেই চাপ কেটে আমরা বেরিয়ে এসেছি।

ছন্দে ফিরেছেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান তামিম। তার রানে ফেরা অনেক বড় স্বস্তি বাংলাদেশের জন্য। উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান এনামুল হক চোট পাওয়ায় তার বদলে দলের সাথে যোগ দিয়েছেন ইমরুল কায়েস। সৌম্য সরকারের জায়গায় দলে আসতে পারেন তিনি। গত বিশ্বকাপে শেষবার ইংল্যান্ডের বিপক্ষে খেলেছিলো বাংলাদেশ। সেই ম্যাচে জয়ের সুখস্মৃতি নিয়ে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। চট্টগ্রামের সেই ম্যাচে দারুণ ভূমিকা রেখে ম্যাচ সেরার পুরস্কার জিতেছিলেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান ইমরুল। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বরাবরই জ্বলে ওঠেন তিনি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *