আলমডাঙ্গার সৃজনী বিদ্যাপীঠের বিদায় ও বরণ অনুষ্ঠানে চুয়াডাঙ্গা পৌর মেয়র টোটন

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি: ‘মেয়েরা আমাদের সম্পদ, মেয়েরা আমাদের সম্মান। তাদেরকে আর অবহেলা করা যাবে না। যথাযথ শিক্ষার মাধ্যমে তাদেরকে এগিয়ে নিতে হবে। অল্প বয়সে বিয়ে দিয়ে কোনো মেয়ের জীবন নষ্ট করবেন না কেউ। আজকের একজন ছাত্রী আগামী দিনের যোগ্য মা। তাই তাকে মানুষের মতো মানুষ করে গড়ে তুলতে হবে। নারীশিক্ষার কোনো বিকল্প নেই। তারা যেন শিক্ষাজীবন থেকে ঝরে না যায়, সে জন্য সরকার মেয়েদের পাশাপাশি ছেলেদেরও উপবৃত্তি দিচ্ছে।’ অভিভাবকদের উদ্দেশে কথাগুলো বলেন বিশিষ্ট ক্রীড়া সংগঠক চুয়াডাঙ্গা পৌর মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন। তিনি গতকাল শুক্রবার সকাল ১০টায় আলমডাঙ্গা মুন্সিগঞ্জের সৃজনী মডেল মাধ্যমিক বিদ্যাপীঠের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায়, ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র-ছাত্রীদের বরণ ও উদ্দীপনা পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে নারীশিক্ষার গুরুত্ব তুলে ধরে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন। তিনি আরো বলেন ‘বর্তমান সরকার বছরের শুরুতেই প্রত্যেক ছাত্র-ছাত্রীর হাতে বিনামূল্যে বই তুলে দিচ্ছে। মাধ্যমিক ছাড়িয়ে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়েও বই দেয়ার কথা ভাবছে সরকার। শেখ হাসিনা সরকার উন্নয়নের সরকার। সেক্ষেত্রে এ সরকার শিক্ষাক্ষেত্রে অভূতপূর্ব সাফল্য দেখিয়েছে। আগে বিদ্যুত মাঝে মাঝে আসতো। আর এখন বিদ্যুত এলে আর যায় না।’ অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন বিদ্যালয়ের বিগত দিনের ফলাফলে খুশি হয়ে বেশ কিছু সহযোগিতা ঘোষণা করেন এবং অনুষ্ঠানের খরচ বাবদ নগদ ১০ হাজার টাকা তুলে দেন প্রধান শিক্ষকের হাতে।

সৃজনী মডেল মাধ্যমিক বিদ্যাপীঠের প্রধান শিক্ষক আহাদ আলী মোল্লার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আলমডাঙ্গা উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী মকবুলার রহমান। তিনি তার বক্তৃতায় প্রধান অতিথি পৌর মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দারকে উদ্দেশ্য করে বলেন ‘আপনি বর্তমানে খুবই ব্যস্ততম একজন মানুষ। তারপরেও মাননীয় হুইপ সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দারের অনুপস্থিতিতে চুয়াডাঙ্গা-১ আসন এলাকার অধিকাংশ সমস্যা সমাধানের দায়িত্ব আপনার ওপরেই বর্তায়। আমি বারবার এই সৃজনী বিদ্যাপীঠে আপনাকে আসতে দেখি। এ প্রতিষ্ঠান আপনার নিজের। আপনি এর অভিভাবক। যেহেতু বিদ্যালয়টি অবহেলিত থেকেও প্রতি বছর ভালো ফলাফল করছে তাই এর সব সমস্যা সমাধানের দায়িত্ব আপনারই।’

বিদায় ও বরণ অনুষ্ঠানে অন্যান্য বিশেষ অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গার বিশিষ্ট ভুট্টাব্যবসায়ী রাজ এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী শামসুল হক, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. সামসুজ্জোহা, খাদিমপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হালিম মণ্ডল, মরহুম ডা. মকছুদ আলী মুন্সিগঞ্জ পশুহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আনছার আলী, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ইউপি মেম্বার আব্দুল হান্নান, ইউপি মেম্বার হাসেম মাহমুদ, শিক্ষানুরাগী বাবুল হোসেন, যুবলীগ নেতা বিশিষ্ট হাটব্যবসায়ী খলিলুর রহমান, আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুস সাত্তার, যুবলীগ নেতা সালাউদ্দিন, বিদ্যালয়ের বিদ্যোৎসাহী সদস্য মজিবুর রহমান লাড্ডু, অভিভাবক সদস্য ডা. আজিজুর রহমান, বজলুল হক ও সবিতা রানী অধিকারী।

সহকারী শিক্ষক নূরে আলম ছিদ্দিকের পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত বিদায় ও বরণ অনুষ্ঠানে শিক্ষকদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক গোলাম মোস্তফা। বিদায়ী ছাত্র-ছাত্রীদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখে তামিম ইকবাল। অনুষ্ঠানে জেহালা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আসিরুল ইসলাম সেলিমের সৌজন্যে শিক্ষার্থীদের মধ্যে উদ্দীপনা পুরস্কার বিতরণ করা হয়। একই সাথে মজিবুর রহমান লাড্ডু ও এসআই ভ্যারাইটিজ স্টোরের পক্ষ থেকে আহসান হাবিব বাবু ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষাপোকরণ প্রদান করেন। বিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মচারীদের সহায়তায় অনুষ্ঠানের সার্বিক সহযোগিতা করেন বিদ্যালয়ের সাবেক সহসভাপতি ও শুভাকাঙ্ক্ষী হেলালুল ইসলাম হেলাল। অনুষ্ঠানটি প্রাণবন্ত পরিচালনা করেন বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক আতিকুল হক বুলবুল।

Leave a comment

Your email address will not be published.