অস্ট্রেলিয়ার বাংলাদেশ সফরের ‘সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন’

 

মাথাভাঙ্গা মনিটর: ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নির্বাহী জেমস সন্দারল্যান্ড বলেছেন, অস্ট্রেলিয়া দলের বাংলাদেশ সফর নিয়ে সব কিছুই ঠিকমত চলছে। কেবল নিরাপত্তাবিষয়ক ব্যবস্থাপনা ও সময়সূচি নির্ধারণই বাকি। গত বছরের আগস্ট থেকে এই সফর হওয়ার কথা যেখানে অসিরা টাইগারদের বিপক্ষে ঢাকা ও চট্টগ্রামে দুটি টেস্টে অংশ নেয়ার কথা ছিলো। গত সোমবার সন্দারল্যান্ড বলেন, সফরের খুটিনাটি সববিষয় নিয়েই আমরা কাজ করছি। আমি খুবই আনন্দিত যে আমরা এমন একটা জায়গায় দাঁড়িয়ে, যেখান থেকে কেবল ছোটখাটো বিষয়ই চূড়ান্ত করা বাকি। তিনি আরো বলেন, একবার সফরের তারিখ চূড়ান্ত হয়ে গেলেই প্রস্তাবিত তারিখে সফর হওয়াটা আর বন্ধ হবে না। দুই দেশের সরকারও সফরটির ব্যাপারে ইতিবাচক।

বাংলাদেশের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েও অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কাজ করেছে সিএ। সাদারল্যান্ড বলেছেন, ‘আমরা বাংলাদেশের নিরাপত্তা ব্যবস্থার ওপর অস্ট্রেলীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও অন্যান্য নিরাপত্তা সংস্থার সঙ্গে কাজ করেছি। এখন পর্যন্ত আমাদের যে অভিজ্ঞতা, তাতে আমরা এই সফর যথা সময়ে হওয়ার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী। এখনো পর্যন্ত নিরাপত্তাবিষয়ক কিছু ব্যাপার চূড়ান্ত করা বাকি। যখনই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড নিরাপত্তাবিষয়ক ব্যাপার-স্যাপার ও সূচি চূড়ান্ত করবে, আমাদের তরফ থেকেও সফরের চূড়ান্ত আয়োজন শুরু হবে।’

২০০৬ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্ট খেলেছিলো অস্ট্রেলিয়া। এরপর ২০১১ সালে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে আবার বাংলাদেশে আসে অস্ট্রেলিয়া। ২০০৩ সালে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলেছিলো বাংলাদেশ। ২০০৮ সালের দ্বিতীয় সফরটিতে অনুষ্ঠিত হয়েছিল কেবল ওয়ানডে সিরিজ। বাংলাদেশের অস্ট্রেলিয়া সফরে খেলাগুলো হয়েছিলো ডারউইন ও কেয়ার্নসের মতো অপ্রচলিত ভেন্যুতে। টেস্ট মর্যাদা পাওয়ার পর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষেই সবচেয়ে কম (৪টি) টেস্ট খেলেছে বাংলাদেশ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *