অস্ট্রেলিয়াকে হারানো অসম্ভব নয় : মুশফিক

স্টাফ রিপোর্টার: সর্বশেষ ২০০৬ সালের পর প্রথমবারের মতো টেস্ট সিরিজ খেলতে বাংলাদেশ সফরে আসছে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। এ সময়ে বাংলাদেশের ক্রিকেটে অনেক কিছুই পরিবর্তন হয়েছে। বিশেষ করে গত এক বছরে টাইগার দলটির ঘটেছে দারুণ উন্নতি। এ সময়ে বাংলাদেশ প্রথমবার নিজ মাটিতে টেস্টে ক্রিকেটে একবার করে ইংল্যান্ডকে, শ্রীলঙ্কাকে তাদের মাটিতে হারিয়েছে। তবে ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশ এখন অনেক বেশি শক্তিশালী একটি দল। তাই সংক্ষিপ্ত ভার্সনের সাফল্য এবার লংগার ভার্সনেও চায় টাইগাররা। সফরকারী অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে আসন্ন সিরিজে নিজ দলের ভালো পারফরমেন্সের বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। দলের পরিবর্তনকালীন সময়, নিজের ব্যাটিং, উইকেটকিপিং, অধিনায়কত্বসহ বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেছেন মুশফিক। তিনি বলেন, আমরা ওয়ানডে ক্রিকেটে অনেক বেশি উন্নতি করা একটি দল। কিন্তু টেস্ট ক্রিকেটে সেটা দেখা যাচ্ছে না। দলে কোনো লেগ স্পিনার অথবা সত্যিকারের ফাস্ট বোলার নেই গত ছয় বছর যাবত আপনি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। এ সময়ে কতোটা চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছেন?

আপনি যেটা উল্লেখ করলেন, তেমন ধরনের খেলোয়াড় না থাকলে টেস্ট ক্রিকেটে ধারাবাহিক পারফরমেন্স করাটা বেশ কঠিন। আপনি কতো ভালো খেলেন সেটা কোনো বিষয় নয়, একটা টেস্ট ম্যাচ জিততে হলে ২০ উইকেট নেয়ার মতো খেলোয়াড় আপনার দলে থাকতে হবে। যেকোনো প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধেই এটা দরকার। যেহেতু আমাদের সত্যিকারের একজন লেগ স্পিনার কিংবা সত্যিকারের ফাস্ট বোলার নেই তাই সম্ভবত এ দিক থেকে আমরা কিছুটা পিছিয়ে আছি। তবে একই সঙ্গে আমরা গত দুই/তিন বছরে মুস্তাফিজ এবং মিরাজের মতো খেলোয়াড় তৈরি করতে পেরেছি। আগামী দুই/তিন বছর তারা ভালো খেলতে পারলে আশা করি এটা ভালো একটা টেস্ট হতে আমাদের জন্য সহায়ক হবে। অন্য ফর্মেটে আপনি দুই ঘণ্টা ভালো খেলতে পারলেই ম্যাচ জিততে পারবেন। কিন্তু টেস্ট ক্রিকেটে ম্যাচ জিততে আপনাকে পাঁচদিন, সেশন বাই সেশন ভালো খেলতে হবে। এর সঙ্গে মানিয়ে নিতে তাদের সম্ভবত এক/দুই বছর সময় লাগবে এবং এরপর আমরা শক্তিশালী একটা দলে পরিণত হতে পারি।

Leave a comment

Your email address will not be published.