অলিম্পিকে খেলার সুযোগ পাচ্ছেন দেশহীন শরণার্থীরাও

অলিম্পিকে খেলার সুযোগ পাচ্ছেন দেশহীন শরণার্থীরাও

স্টাফ রিপোর্টার: অলিম্পিকের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো অংশ নিতে যাচ্ছেন দেশহীন শরণার্থীদের একটি দল। আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি বলছে, বিশ্বের লাখ লাখ শরণার্থীর জন্য এ দলটি হবে আশা জাগানিয়া এক দল।

এরই মধ্যে মধ্যপ্রাচ্যসহ বিভিন্ন দেশ থেকে পালিয়ে আসা শরণার্থীদের ভেতর থেকে বাছাই করা হয়েছে ৪৩ জন সম্ভাব্য প্রতিযোগী। চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় তাদের মধ্যে অন্তত পাঁচ থেকে দশজন অংশ নেবেন বলে আশা করা হচ্ছে। আগস্টের ৫ তারিখে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রিওতে এ দলটি আয়োজক দেশ ব্রাজিলেরও আগে অলিম্পিকের পতাকা বয়ে ৱ্যালিতে হাঁটবেন। দেশহীন ও জাতীয় সঙ্গীতহীন অ্যাথলেটরা গাইবেন অলিম্পিক সঙ্গীত। আর পুরো সময়টা ধরে এ শরণার্থী দলের প্রশিক্ষণ ও অন্যান্য সব খরচ বহন করবে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি।

আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির প্রেসিডেন্ট টমাস বাখ বলেছেন, বিশ্বব্যাপী শরণার্থী সংকটের তীব্রতা দেখে আপ্লুত হয়েই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে আইওসি।

 

স্টাফ রিপোর্টার: অলিম্পিকের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো অংশ নিতে যাচ্ছেন দেশহীন শরণার্থীদের একটি দল। আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি বলছে, বিশ্বের লাখ লাখ শরণার্থীর জন্য এ দলটি হবে আশা জাগানিয়া এক দল।

এরই মধ্যে মধ্যপ্রাচ্যসহ বিভিন্ন দেশ থেকে পালিয়ে আসা শরণার্থীদের ভেতর থেকে বাছাই করা হয়েছে ৪৩ জন সম্ভাব্য প্রতিযোগী। চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় তাদের মধ্যে অন্তত পাঁচ থেকে দশজন অংশ নেবেন বলে আশা করা হচ্ছে। আগস্টের ৫ তারিখে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রিওতে এ দলটি আয়োজক দেশ ব্রাজিলেরও আগে অলিম্পিকের পতাকা বয়ে ৱ্যালিতে হাঁটবেন। দেশহীন ও জাতীয় সঙ্গীতহীন অ্যাথলেটরা গাইবেন অলিম্পিক সঙ্গীত। আর পুরো সময়টা ধরে এ শরণার্থী দলের প্রশিক্ষণ ও অন্যান্য সব খরচ বহন করবে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি।

আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির প্রেসিডেন্ট টমাস বাখ বলেছেন, বিশ্বব্যাপী শরণার্থী সংকটের তীব্রতা দেখে আপ্লুত হয়েই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে আইওসি।

Leave a comment

Your email address will not be published.