অবসরের ঘোষণা ক্যালিসে

মাথাভাঙ্গা মনিটর: ভারতের বিপক্ষে ডারবানে ক্যারিয়ারের শেষ টেস্ট খেলতে যাচ্ছেন জ্যাক ক্যালিস। এরপর টেস্ট ও প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট থেকে অবসর নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার এ অলরাউন্ডার। ডারবানের কিংসমিডে আজ বৃহস্পতিবার সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট শুরু হবে। ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকার (সিএসএ) ওয়েবসাইটে ইতিহাসের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার ক্যালিসের অবসরের সিদ্ধান্ত নেয়ার কথা জানানো হয়। অবশ্য সীমিত ওভারের ক্রিকেটে খেলবেন তিনি। ১৬৫ টেস্ট খেলা ক্যালিস অবসর নেয়ার ঘোষণা দিয়ে বলেন, ১৮ বছর আগে অভিষেকের পর থেকে দক্ষিণ আফ্রিকার টেস্ট দলের অংশ থাকতে পারাটা আমার জন্য অনেক সম্মানের। খেলার প্রতিটি মুহূর্ত আমি উপভোগ করেছি। তবে আমার এখন মনে হয়েছে, টেস্টের শাদা পোশাক তুলে রাখার এটাই সেরা সময়। টেস্ট ক্রিকেটের সাথে দেড় যুগের সম্পর্ক ছিন্ন করার সিদ্ধান্ত নেয়াটা মোটেই সহজ ছিলো না ৩৮ বছর বয়সী ক্যালিসের জন্য। এটা খুব একটা সহজ সিদ্ধান্ত ছিলো না। বিশেষ করে কদিন পরেই যখন অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজ শুরু হবে। আর দলও এখন সাফল্য উপভোগ করছে। তবে আমার কাছে মনে হয়েছে এ ধরণের ক্রিকেটে নিজের অবদান আমি রেখে ফেলেছি।
১৯৯৫ সালের ডিসেম্বরে ২০ বছর বয়সে ডারবানেই ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেকের পর ৪৪টি শতকসহ ৫৫.১২ গড়ে ১৩ হাজার ১৭৪ রান করেছেন ক্যালিস। সর্বোচ্চ ২২৪। পাশাপাশি ৫ বার ইনিংসে পাঁচ উইকেটসহ ৩২.৫৩ গড়ে ২৯২টি উইকেট নিয়েছেন। সেরা বোলিং ৬/৫৪। ক্যাচ নিয়েছেন ১৯৯টি। সর্বশেষ দু বছর দারুণ উপভোগ করার কথা জানিয়ে ক্যালিস বলেন, আমি ভাগ্যবান, এক ঝাঁক প্রতিভাবান ক্রিকেটারের মাঝ থেকে টেস্ট ক্যারিয়ার শেষ করতে যাচ্ছি। তবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো তাদের সাথে যে বন্ধুত্ব হয়েছে তা অনেক বছর মনের মধ্যে সযত্নে লালন করতে পারবো। ক্যালিসের সমস্ত পরিকল্পনা এখন ২০১৫ ওয়ানডে বিশ্বকাপকে ঘিরে। টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দেয়ার মুহূর্তে সে কথা সবাইকে মনে করিয়ে দিয়ে তিনি বলেন, আমি এটাকে (টেস্ট থেকে অবসর) বিদায় হিসেবে মনে করি না। কারণ ২০১৫ বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকাকে সাহায্য করার মতো যথেষ্ট খিদে এখনো আমার মধ্যে আছে। অবশ্য যদি আমি ফিট থাকি আর পারফর্ম করতে পারি।
ক্যালিসের এ সিদ্ধান্তে দক্ষিণ আফ্রিকার কোচ রাসেল ডমিঙ্গো ব্যথিত। বিষণ্ণ কণ্ঠে তিনি বলেন, দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটে ক্যালিসের অবদান অসীম। সেটা শুধু খেলোয়াড় হিসেবে নয়, মানুষ হিসেবেও। তার মানের ক্রিকেটার আমরা আর কখনো পাবো কি-না সে ব্যাপারে আমি নিশ্চিত নই।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *