২১ বছর পর মাউন্ট ইটনা

মাথাভাঙ্গা মনিটর: ২১ বছর পর ঘুম ভাঙলো ইউরোপের সবচেয়ে সক্রিয় আগ্নেয়গিরি ‘মাউন্ট ইটনা’র। শনিবার ভোররাত থেকেই সিসিলি দ্বীপের পূর্বউপকূলীয় এলাকায় অবস্থিত এ আগ্নেয়গিরির থেকে অগ্ন্যুৎপাত ঘটতে থাকে। মাউন্ট ইটনার ‘গর্ভ’ থেকে লাভা, ধোঁয়া বের হতে দেখা যায়। অগ্ন্যুৎপাতের প্রবল ধোঁয়ার চোটে বন্ধ করে দিতে হয় স্থানীয় ক্যাটানিয়া বিমানবন্দর। তবে অগ্ন্যুৎপাতের মাত্রা মারাÍক নয়। ঘুমন্ত দৈত্য মাউন্ট ইটনার ছবি তুলতে হুড়োহুড়ি পড়ে যায়। পুরো অঞ্চল ধোঁয়ায় ঢেকে যায়। তবে উদ্গিরণের ফলে ক্ষয়ক্ষতির কোনো খবর পাওয়া না গেলেও, স্থানীয়দের সতর্ক থাকতে পরামর্শ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

মাউন্ট ইটনা আগ্নেয়গিরি ইউরোপের একমাত্র সক্রিয় আগ্নেয়গিরি। ১৯৯২ সালে এ আগ্নেয়গিরি থেকে শেষবার বড় ধরনের লাভা উদ্গিরণের ঘটনা ঘটে। অবশ্য মাঝেমধ্যেই অল্পস্বল্প জেগে ওঠে মাউন্ট ইটনা। চলতি বছর মার্চেও অগ্ন্যুৎপাত হয় মাউন্ট ইটনা থেকে। তবে বড় ধরনের অগ্ন্যুৎপাত হয় ২১ বছর পর এই প্রথম। সিসিলি দ্বীপের পূর্বউপকূলীয় এলাকায় অবস্থিত এই সক্রিয় আগ্নেয়গিরিটি। ‘মাউন্ট ইটনা’- আফ্রিকা প্লেট ও ইউরোশিয়া প্লেটের মধ্যবর্তী স্থানে অবস্থিত। এটি ইউরোপের সর্বোচ্চ সক্রিয় আগ্নেয়গিরি, যা ৩,৩২৯ মিটার (১০,৯২২ ফুট) উঁচু। ইতালিতে অনেকেই একে ইউরোপের দৈত্য নামে ডাকে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *