২০২২ সাল নাগাদ ভারতে ১০ কোটি নতুন কর্মসংস্থান

মাথাভাঙ্গা মনিটর: ভারতের বাণিজ্য ও শিল্পমন্ত্রী আনন্দ শর্মা জানিয়েছেন, ভারত ২০২২ সালের মধ্যে দশ কোটি নতুন কর্মসংস্থানের সৃষ্টি করবে। এছাড়া আগামী দশ বছরের মধ্যে জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার বর্তমানের ১৬ শতাংশ থেকে ২৫ শতাংশে উন্নীত করবে বলেও জানান তিনি। শুক্রবার সুইজারল্যান্ডের দাভোসে বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের বার্ষিক সম্মেলনে এসব তথ্য জানান বাণিজ্যমন্ত্রী।

কর্মসংস্থানের কাজটি করা ভারতের জন্য অবশ্য কর্তব্য উল্লেখ করে মন্ত্রী আনন্দ শর্মা বলেন, রপ্তানি বৃদ্ধি এবং অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা বজায় রাখার স্বার্থে ভারত তার উত্পাদন কার্যক্রম বাড়াবে। তিনি জানান, ভারতের জাতীয় উত্পাদন নীতি অনুযায়ী উত্পাদন খাতে আগামী দশ বছরে মোট দেশজ উত্পাদন তথা জিডিপি প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা ২৫ শতাংশ ধরা হয়েছে। বর্তমানে দেশটির জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার ১৫ বা ১৬ শতাংশ। এছাড়া উত্পাদন খাতে ২০২২ সালের মধ্যে দশ কোটি নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা হবে যাতে সেখানে দক্ষতাসম্পন্ন ব্যক্তিরা নিয়োগ পাবেন। সম্মেলনে তিনি বিভিন্ন আন্তর্জাতিক কোম্পানির নির্বাহীদের সঙ্গে বৈঠক করেন। ভারতের সম্ভাব্য অর্থনৈতিক গতি-প্রকৃতি সম্পর্কে তিনি কোম্পানীর নির্বাহীদের আশ্বস্ত করেন। এই সম্মেলন এমন এক সময়ে হচ্ছে যখন ভারতের অর্থনীতির ধীর গতি রয়েছে। ফলে ভারত এখন সরাসরি বৈদেশিক বিনিয়োগের প্রত্যাশা করছে। আনন্দ শর্মা মার্কিন বাণিজ্য প্রতিনিধি দল এবং বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার (ডাব্লিউটিও) প্রধান রবার্টো আজেভেদোর সঙ্গেও বৈঠক করেন। ইন্দোনেশিয়ার বালিতে বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার সদস্য দেশগুলোর মন্ত্রী পর্যায়ের সম্মেলনের পর এটাই প্রথম বৈঠক।

Leave a comment

Your email address will not be published.