হোয়াইট মারবেল জাতের ফুলকপির বীজ কিনে প্রতারিত চাষিকুল : লাখ লাখ টাকার ক্ষতির সম্মুখিন মোহাম্মদপুরের চাষিরা

স্টাফ রিপোর্টার: বিক্রয় প্রতিনিধির প্রতিশ্রুতিতে আকৃষ্ট হয়ে চকচকে মোড়কে হোয়াইট মারবেল জাতের ফুলকপির বীজ কিনে প্রতারিত হয়েছেন মোহাম্মদপুর গ্রামের চাষিরা। বীজ বিক্রয় প্রতিনিধির নিকট প্রতিকার চাইতে গেলে শূন্যহাতে বিদায় করে দিয়েছে চাষিদের। চারা লাগাতে না পেরে চাষিরা হয়ে পড়েছে দিশেহারা।

ক্ষতিগ্রস্ত চাষিদের অভিযোগে জানা গেছে, ফুলকপির চাষ করতে হলে প্রথমে বীজতলায় চারা তৈরি করে নিতে হয়। মাসখানেক আগে মোহাম্মদপুর গ্রামের নুহুর ছেলে নিজাম, শফি, রশিদসহ বেশকয়েকজন চাষি চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার সরোজগঞ্জ বাজারের বিশ্বাস বীজ ভাণ্ডারের স্বত্ত্বাধিকারী আ.মান্নানের নিকট যান। আব্দুল মান্নানের কথায় আকৃষ্ট হয়ে তারা হোয়াইট মারবেল জাতের ৫৮০ টাকা দরে ফুলকপির বীজ কিনে নিয়ে আসেন। ওই বীজ বীজতলায় চারা তৈরির জন্য রোপণ করা হলে ২৮ দিনের মাথায় বীজতলাতেই ফুল দেখা দেয়। চাষিরা ওই চারা নিয়ে দোকানিকে দেখিয়ে এর প্রতিকার চান। দোকানি প্রতিকার না করে তাদেরকে শূন্যহাতে বিদায় করে দেয় বলে ক্ষতিগ্রস্ত চাষিরা জানান। ফলে ওই বীজের চারা লাগাতে না পেরে চলতি মরসুমে লাখ লাখ টাকা ক্ষতির সম্মুখিন হয়েছে বলে চাষিরা জানান। এ বিষয়ে বীজ বিক্রেতা মান্নানের সাথে যোগাযোগ করা হলে মোবাইলফোন রিসিভ করে তার ভাতিজা পরিচয়ে জানায় চাষিরা ঠিকমত পরিচর্যা না করায় এ ধরনের ঘটনা ঘটেছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *