সাপে কাটা রোগী নিয়ে ওঝা কবিরাজের কাটাছেঁড়া

স্টাফ রিপোর্টার: সাপে কাটলেই কি বিষ প্রয়োগ করে? বিষ না প্রয়োগ করলে এন্টিস্নেক ভেনম লাগে না। সে কারণে সর্পদ্রস্ট রোগী হাসপাতালে নিলেই তাকে এন্টিস্নেক ভেনম প্রয়োগ না করে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়। এতে অনেকেরই তর সয় না, কেউ কেউ হাসপাতালেই ওঝা কবিরাজের নিযুক্ত দালালের প্ররোচনায় পড়ে কাটা-ছেড়াসহ অপচিকিৎসার শিকার হন। গতকালও এক কিশোরীকে হাসপাতাল থেকে বেলগাছির আলোচিত ওঝার নিকট নিয়ে অপচিকিৎসা দেয়া হয়েছে। ভাগ্যিস ওই কিশোরীকে সাপে বিষ প্রয়োগ করেনি, বিষ প্রয়োগ করলে ওই ওঝার কাছে মৃত্যু হয়ে উঠতো অনিবার্য। এর আগে অনেক রোগী ওই ওঝার বাড়িতেই মারা গেছে। তখন ওঝা সামনে খাড়া করেছে নানা অজুহাত। স্থানীয় বেশ কয়েকজন সচেতন ব্যক্তি এ মন্তব্য করে বলেন, দামুড়হুদা দেউলী গ্রামের মফিজুল ইসলামের মেয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী হাসিনা খাতুন গতকাল সকালে বাড়ির পাশে পাটকাঠি তুলতে গেলে সাপে কাটে। ছোট্ট একটা সাপে হাতে দংশন করেছে বলে জানায় সে। পরিবারের সদস্যরা সাপটিসহ কিশোরীকে হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করায়। চিকিৎসক পর্যবেক্ষণে রাখেন। এরই মাঝেই রোগীর লোকজন বিভ্রান্তির মধ্যে পড়ে রোগীকে নিয়ে যায় বেলগাছির মহিবুল্লাহ নামের কবিরাজের নিকট। সেখানে নিয়ে চলে কাটাছেঁড়া। পরে সেখান থেকে কিশোরীকে বাড়ি নেয়া হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *