সরোজগঞ্জে মদপান করে বাজারের ভেতর স্ত্রীকে মারধর

 

পাঁচমাইল প্রতিনিধি: সরোজগঞ্জের বহালগাছিতে মদপান করে বাজারের ভেতরে স্ত্রী ও সন্তানকে মারপিটের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল রোববার বেলা ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। মারপিটের শিকার শারমিন খাতুন জানান, তার স্বামী রাসেল মাদকসেবনকারী। সে তো নিজে শেষ হয়েছেই সেই সাথে আমার ও আমার ছয় মাসের শিশু সন্তানকে শেষ করেছে। আমাদের সংসারে ৬ মাসের ছেলে সন্তান রয়েছে। আমার স্বামী রাসেল অনেক আগে থেকেই মাদক সেবন করতো। কাজকর্ম কোনো কিছুই করে না। আমার পিতার বাড়ি থেকে টাকা-পয়সা চাল-ডাল নিয়ে এসে সংসার কোনোরকম চালাই। যদি মাদকসেবন করার টাকা আমি না দিয়ে থাকি তাহলে আমাকে সেই দিনে বিভিন্নভাবে অত্যাচার করে। সরোজগঞ্জ শম্ভুনগরে রাসেলের ভগ্নিপতির সেলিমের বাড়িতে প্রায় ১ মাস বেড়াতে এসেছি। রাসেল তার ভগ্নিপতির বাড়িতে মাঝে মধ্যেই বেড়াতে আসতো। এখানে এসে বিভিন্ন জায়গা থেকে মাদকসেবন করে। গতকাল আমাকে বলে সরোজগঞ্জ বাজারে আমার একটি মোবাইল সার্ভিসিঙের কাজ করাতে দিয়েছি। আমার সাথে চল মোবাইলে কাজ করিয়ে বিকেল ৩টায় গাড়ির টিকিট করা আছে ঢাকায় চলে যাবো। সরোজগঞ্জ বাজারে এসে আমাকে নিয়ে চলে যায় বহালগাছি গ্রামের এক রাস্তার ধারে এক বাড়িতে। ওই বাড়িতে গিয়ে মদপান করে। বাজারে এসে নেশার তাড়নায় আমাকে এক হোটেলের মধ্যে নিয়ে আচমকায় মারতে থাকে। শুধু তাই নয় আমার কোলের ৬ মাসের শিশু সন্তানকেও রক্ষা করেনি। তাকেও মারধর করে। তখন বাজারের লোকজন আমাকে রাসেলের হাত থেকে রক্ষা করে।

 

Leave a comment

Your email address will not be published.