সতীনের সংসারে শান্তি নেই শুধু অশান্তির আগুন

বিয়ের মাস ঘুরতে না ঘুরতে কলেজছাত্রী জুলেখার সরলোক্তি

 

স্টাফ রিপোর্টার: যতোই মানিয়ে নিয়ে সংসারের স্বপ্ন দেখো, সতীনের ঘরে শান্তি নেই। বিয়ের মাত্র মাস খানেকের মাথায় জুলেখা তার স্বামী চুয়াডাঙ্গা শঙ্করচন্দ্র ঠাকুরপাড়ার মোসার লাঠিপেটায় আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তির সময় এ মন্তব্য করে বলেছে, স্বামী সতীনের শাস্তি চাই, বিচার চাই।

জানা গেছে, মোসার ঘরে স্ত্রী সন্তান থাকলেও কলেজপড়ুয়া জুলেখার সাথে প্রেম সম্পর্ক নিয়ে গ্রামে নানামুখি গুঞ্জন ওঠে। এক পর্যায়ে গ্রামের কয়েক মাতবর সোমার সাথে জুলেখার বিয়ে দেয়। বাধা দিতে গেলে মোসার প্রথম স্ত্রী মারুফাকে মারধরও করা হয়। তাকে হাসপাতালে পাঠিয়ে মোসা বসে বিয়ের আসনে। বিয়ের পর নতুন বউ সাথে নিয়ে মোসা হাসপাতালে তার প্রথম স্ত্রীর শয্যাপাশে হাজির হয়। ঘটনাটি পত্রিকার পাতায় ঠাঁই পায়। প্রথম স্ত্রীর সম্মতি ছাড়া দ্বিতীয় বিয়ের আয়োজন নিয়ে প্রশ্নও ওঠে। সেই প্রশ্নের জবাব মেলেনি, এরই মাঝে দাম্পত্য কলহ তীব্র থেকে তীব্রতর হয়ে উঠেছে। জুলেখাকে গতকাল চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। এ সময় জুলেখা তার স্বামী ও সতীনের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বলে, আমাকে ওরা মেনে নিচ্ছে না। আমাকে মেরে আহত করেছে। আমি বিচারের জন্য আইনের আশ্রয় নেবো।

সতীনের সংসারে অশান্তি- এটা জেনেও কেন বিয়ে করেছিলে? জুলেখা জবাব না দিয়ে মাথা নিচু করে থেকেছে। খানেকটা নীরবেই ঝরিয়েছে অশ্রু।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *