রোনাল্ডোর অগ্নিপরীক্ষা

মাথাভাঙ্গা মনিটর: একযুগের হাহাকার ঘুচিয়ে রিয়াল মাদ্রিদকে এনে দিয়েছেন স্বপ্নের লা ডেসিমা।চ্যাম্পিয়ন্স লীগে এক মরসুমে সর্বোচ্চ গোলের নতুন রেকর্ড গড়েছেন। কিন্তু একহারেই তার সব ক্লাব কীর্তি আড়ালে চলে যেতে পারে। এটা যে বিশ্বকাপের বছর।প্রথম রাউন্ড থেকে পর্তুগাল ছিটকে গেলে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর আলো ঝলমলেক্লাব মরসুমের কথা কেউ মনে রাখবে না। বছর শেষে নিশ্চিতভাবেই ফিফা ব্যালনডি’অর মুকুটটি হারাতে হবে পর্তুগিজ রাজপুত্রকে। আক্ষরিক অর্থেই রোনাল্ডোরআজ অগ্নিপরীক্ষা। মানাউসে বাংলাদেশ সময় রাত ৪টায় শেষ ষোলোর স্বপ্ন বাঁচিয়েরাখার ম্যাচে যুক্তরাষ্ট্রের মুখোমুখি হবে পর্তুগাল। প্রথম ম্যাচেজার্মানির কাছে ৪-০ গোলে বিধ্বস্ত হয়ে দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে পর্তুগিজদের।ছায়াসঙ্গী চোট নিয়ে মনের জোরে মাঠে নেমে কিছুই করতে পারেননি তাদেরস্বপ্নসারথি রোনাল্ডো। তিনিই একমাত্র নক্ষত্র এবারের বিশ্বকাপে এখনও যারঝলক দেখা যায়নি। নিজেকে মেলে ধরার আজই শেষ সুযোগ রোনাল্ডোর। জিতলে দ্বিতীয়রাউন্ডের আশা বেঁচে থাকবে। হারলে বিদায় প্রায় নিশ্চিত। রোনাল্ডো আজ জ্বলেউঠতে না পারলে আইভেরিয়ান পড়শি স্পেনের সাথে একই বিমানে হয়তো দেশের পথ ধরতেহবে পর্তুগিজদের।

পর্তুগাল দলটি এতোটাই রোনাল্ডোনির্ভর যে দলের সমর্থকহয়ে গেছেন সিআর সেভেন। কিন্তু যাকে নিয়ে এতো কথা সেই রোনাল্ডো আজ খেলতেপারবেন তো?হাঁটুর পুরনো চোটে নাকি নাকাল পর্তুগাল অধিনায়ক। গত কয়েকদিনধরেই হাঁটুতে আইস প্যাক নিয়ে ঘুরে বেড়াতে দেখা যাচ্ছে রোনাল্ডোকে। কিন্তুপর্তুগিজ শিবির থেকে জানানো হচ্ছে, রোনাল্ডো ভালোই আছেন। পরশু পুরোদমেঅনুশীলন করেছেন। দূরপাল্লার শটও নিয়েছেন। সতীর্থ মিগুয়েল ভেলেসো তো বলেইদিয়েছেন, ‘আমি চিকিৎসক নই। তবে দেখে মনে হচ্ছে রোনাল্ডো ভালো আছে। অনুশীলনকরছে, লাফাচ্ছে। সব ঠিক আছে।’ আসলেই কি সব ঠিক আছে?পর্তুগিজ মিডিয়ার দাবি, আজকের ম্যাচের জন্য শতভাগ ফিট নন রোনাল্ডো। সে যাই হোক বাঁচা-মরার ম্যাচেপ্রয়োজনে ব্যথানাশক ইনজেকশন নিয়ে হলেও খেলতে চান পর্তুগাল অধিনায়ক।
রোনাল্ডোরচোট সংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তর দিতে দিতে ক্লান্ত তার সতীর্থরা। কিছুটাক্ষুব্ধ সুরেই হেল্ডার পোস্তিগা বললেন, ‘রোনাল্ডোকে নিয়ে যা হচ্ছে তাবাড়াবাড়ি।’ রোনাল্ডো ছাড়াও কোচ পাওলো বেন্টোর মাথাব্যথার অনেক কারণ আছে।জার্মানি ম্যাচে লাল কার্ড দেখায় আজ খেলতে পারবেন না পেপে। আরেক ডিফেন্ডারফ্যাবিও কোয়েন্ত্রাও বিশ্বকাপ থেকেই ছিটকে গেছেন। তারপরও যুক্তরাষ্ট্রকেহারানোর ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী পাওলো বেন্টো। তার ভাষ্য, ‘নিজেদের সেরাটাখেলতে পারলে পর্তুগালই জিতবে। যুক্তরাষ্ট্রকে আমি সমীহ করি। গত কয়েক বছরেঅনেক উন্নতি করেছে তারা। কিন্তু নিজেদের সামর্থ্যরে ওপর আস্থা আছে আমাদের।’

এদিকেপ্রথম ম্যাচে ঘানাকে ২-১ গোলে হারিয়ে বেশ ভালো অবস্থানে আছে যুক্তরাষ্ট্র।পর্তুগালের মতো এটা তাদের জন্য ঠিক বাঁচা-মরার ম্যাচ নয়। তবে শেষ ম্যাচেজার্মানির মুখোমুখি হওয়ার আগেই শেষ ষোলোর টিকিট নিশ্চিত করে ফেলতে চাইবেনজুর্গেন ক্লিন্সম্যানের শিষ্যরা। মার্কিন শিবিরেও চোট সমস্যা রয়েছে।স্ট্রাইকার জজি অ্যালটিডোরকে আজ পাচ্ছেন না ক্লিন্সম্যান। তবে আগের ম্যাচেনাক ভেঙে যাওয়া আরেক স্ট্রাইকার ক্লিন্ট ডেম্পসি খেলতে পারবেন।

Leave a comment

Your email address will not be published.