রান্নার গরম পানি নিক্ষেপে সুমিরদিয়ার কিশোরীকে ঝলসে দেয়ার অভিযোগ : পড়শি রাধুনী গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার: রান্নাঘর থেকে ছুঁড়ে ফেলা গরম পানিতে ঝলসে গেছে ১২ বছরের কিশোরী মোমেনার পা। গতপরশু এ ঘটনা ঘটে। তাকে হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। মোমেনার মায়ের অভিযোগ, প্রতিবেশী আবু তাহেরের স্ত্রী আলেয়া পূর্ব বিরোধের জের ধরে ইচ্ছে করে গরম পানি ছুঁড়ে মেরে মোমেনাকে ঝলসে দিয়েছে। এ অভিযোগে পুলিশ শুধু আলেয়াকে গ্রেফতারই করেনি, লোকমোর্চার একটি প্রতিনিধি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শনও করেছে।

মোমেনা চুয়াডাঙ্গা সুমিরদিয়া রেলপাড়ার ইদ্রিস আলীর মেয়ে। আলেয়াকে পুলিশ গ্রেফতার করলে গ্রামে বিরূপ প্রতিক্রিয়া ফুটে ওঠে। আলেয়া অবশ্য শুরু থেকেই বলে আসছে, আমি ইচ্ছে করে গরম পানি কারো গায়ে ফেলিনি। রান্নার গরম পানি না দেখেই ফেলি। মোমেনার পায়ে পড়েছে দেখে ছুটে গিয়ে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে সুস্থ করার চেস্টা করি। অথচ অভিযোগ, আমি নাকি ইচ্ছে করে গরম পানি ফেলে ওর পা ঝলসে দিয়েছি।

অভিযোগের প্রেক্ষিতে চুয়াডাঙ্গা লোকমোর্চার একটি প্রতিনিধিদল গতকাল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। তারা অভিযুক্ত আলেয়ার শাস্তির দাবিও জানিয়েছে। জেলা লোকমোর্চা সভাপতি অ্যাড. আলমগীর হোসেন যেমন হাসপাতালে মোমেনাকে দেখতে যান, তেমনই সদর থানার ওসিও মোমেনাকে দেখতে হাসপাতালে যান। সদর থানা পুলিশ আলেয়াকে গ্রেফতার করে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *