রানা প্লাজা : ক্ষতিপূরণে ৪ কোটি ডলারের তহবিল

স্টাফ রিপোর্টার: সাভারে রানা প্লাজা ধসে হতাহতদের পরিবারকে সহায়তা দিতে চার কোটি ডলারের একটি তহবিল গড়তে সম্মত হয়েছে বিদেশি ক্রেতা ও কয়েকটি আন্তর্জাতিক শ্রমিক সংগঠন। আয়ারল্যান্ডভিত্তিক প্রাইমার্ক, স্পেনের এল কোর্তে ইঙ্গলস, কানাডার লোব্লো ও যুক্তরাজ্যের বোনমার্শ এ তহবিলে অর্থ জোগানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। অবশ্য যুক্তরাষ্ট্রের ওয়ালমার্টের মতো নামকরা প্রতিষ্ঠান, যারা বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের অন্যতম বড় ক্রেতা, তারা এ উদ্যোগে আসনে না। রানা প্লাজার ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ দেয়ার বিষয়ে গত সেপ্টেম্বরে জেনেভায় পোশাক বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান ও শ্রমিক সংগঠনগুলোর এক দফা আলোচনা ব্যর্থ হয়। এরপর গতমাসে আইএলওর মধ্যস্ততায় তহবিল গঠনের বিষয়ে সমঝোতায় পৌঁছায় সব পক্ষ। বাংলাদেশ সরকার, পোশাক প্রস্তুতকারক ও রফতানিকারক সংগঠন (বিজিএমইএ) এবং এমপ্লয়ার্স ফেডারেশনও তহবিল গঠনের চুক্তিতে সই করেছে। তবে সরকারের পক্ষ থেকে এতে কোনো অর্থ দেয়া হবে না বলে জানিয়েছেন শ্রিম সচিব মিকাইল শিপার। তিনি বলেন, সরকারের পক্ষ থেকে এরই মধ্যে ৭৭৭ ক্ষতিগ্রস্তকে ১৮ কোটি টাকা সহায়তা দেয়া হয়েছে। অন্য ক্ষতিগ্রস্তদেরও শিগগিরই দেয়া হবে। আইএলও কর্মকর্তা লেজো সিবেল বলেন, রানা প্লাজা ধসে নিহত ও আহতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দিতে এ তহবিল গঠন করা হয়েছে। এ জন্য প্রায় চল্লিশ মিলিয়ন (চার কোটি) ডলারের প্রয়োজন হবে। তৈরি পোশাকের খ্যাতনামা ব্র্যান্ড ও খুচরা বিক্রেতা প্রতিষ্ঠানগুলো এ তহবিলে স্বেচ্ছায় অর্থ জোগান দেবে জানিয়ে সিবেল বলেন, আন্তর্জাতিক যে কোনো দাতা গোষ্ঠিও এতে অংশ নিতে পারে। গত ২৪ এপ্রিল সাভারে নয় তলা রানা প্লাজা ধসে ১ হাজার ১৩৫ জনের মৃত্যু হয়। ওই ঘটনায় হতাহতদের অধিকাংশই পোশাক শ্রমিক, যারা রানা প্লাজায় থাকা কয়েকটি গার্মেন্ট কারখানায় কাজ করতেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *