যুবতী মেয়েকে দিয়ে মোবাইলফোনে প্রেমের ফাঁদ পেতে সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারীদের কাণ্ড : মোটরসাইকেল ছিনতাই

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: আলমডাঙ্গার পল্লি বেলগাছি গ্রামে হাইস্কুলের নিকটে দিনদুপুরে মোটরসাইকেল ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। যুবতী মেয়েকে দিয়ে মোবাইলফোনে প্রেমের ফাঁদ পেতে সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারীরা এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

জানা গেছে, কুষ্টিয়া জেলার ইবি থানার ছয়ঘরিয়া গ্রামের ফজলু মণ্ডলের ছেলে নুরুল ইসলাম বাবুর মোবাইলফোনে সম্প্রতি এক মেয়ে একটি নম্বর থেকে ফোন দিয়ে নিজেকে ভোদুয়া গ্রামের মেয়ে শোভা পরিচয় দিয়ে প্রেমসম্পর্ক করতে চায়। প্রায় প্রতিদিন কয়েকবার করে তাদের কথা হয়। একপর্যায়ে শোভা মোবাইলপ্রেমিক বাবুকে আলমডাঙ্গার আটকপাট নামক স্থানে দেখা করতে বলে। প্রেমিক নিজে না গিয়ে তার বন্ধু পার্শ্ববর্তী শঙ্করদিয়া গ্রামের কায়েম আলীর ছেলে নজরুলকে বাবু নিজের মোবাইলফোন ও ডিসকভার ১৩৫ সিসি মোটরসাইকেল দিয়ে তার প্রেমিকাকে দেখে আসতে বলে। বিরোহী প্রেমিকের বন্ধু নজরুল গতকাল দুপুরে বন্ধুর প্রেমিকার সাথে দেখা করতে প্রথমে আটকপাটে ছুটে যান। সেখানে শোভাকে খুঁজে না পেয়ে তাকে ফোন দেয়। প্রেমিকা তাকে পুনরায় বেলগাছি গ্রামের হাইস্কুলের নিকট যেতে বলে। বন্ধুর প্রেমিকার অনুরোধে উতলা প্রেমিকের বন্ধু বেলগাছি গ্রামে ছুটে গেলে তাকে মারধর করে মোটরসাইকেল ছিনিয়ে নেয়া হয়। ভোদুয়া গ্রামের কোয়েলের ছেলে সোমিক, একই গ্রামের রঞ্জু, শরিফুল, সবুজ ও আনন্দধামের বাবু মুন্সির ছেলে ফারুক ওই মোটরসাইকেল কেড়ে নেই বলে অভিযোগ তুলে এ ঘটনায় রাতে আলমডাঙ্গা থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। তবে অনেকে দাবি করেছে মোটরসাইকেল ছিনতাইকারীরা বাবুর নিকট টাকা পেতো। বাবু অত্যন্ত ধুরন্ধর প্রকৃতির ছেলে। সোমিক নিজের প্রেমিকা শোভাকে ব্যবহার করে ফাঁদ পেতে এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published.